বিনোদনসেরা খবর

বাবা মেয়ের সম্পর্ক দামী, সেই সম্পর্ককেই সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছে বলিউডের এই ৫ টি সিনেমা

বাবা ও মেয়ের সম্পর্ক সবচেয়ে পবিত্র। প্রতিটি বাবার কাছেই তার মেয়ে রাজকন্যা। তবে প্রথম দিকে মানুষ ভাবত মেয়েরা বাবার মাথার বোঝা আর মেয়েরা তাদের আশা আকাঙ্খা, আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন, কেরিয়ারে এগিয়ে যাওয়ার জন্য বন্ধ ঘর থেকে বের হতে পারে না। আগেকার দিনে একজন বাবার প্রধান দুশ্চিন্তা থাকতো ভালো ঘরে মেয়ের বিয়ে দেওয়া। কিন্তু বর্তমানে অনেক পরিবর্তন এসেছে সমাজে। এখন বাবা তার মেয়েকে এতোটা স্বাধীনতা দিচ্ছেন যাতে তারা তাদের স্বপ্নের উদ্দেশ্যে দৌড়াতে পারে, তাদের কেরিয়ার বেছে নিয়ে নিজেদের পছন্দের আকাশে উড়তে পারে। আমাদের ভারতীয় সিনেমাতেও এমন কিছু ছবি নির্মিত হয়েছে, যেগুলো রূপোলী পর্দায় বাবা-মেয়ের অটুট সম্পর্ককে খুব সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছে। আসুন জেনে নিই এমনই কিছু সিনেমার কথা যেখানে বাবা-মেয়ের সম্পর্ককে দেখানো হয়েছে মজবুত এবং সাবলীল।

1. পিকু:- ২০১৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এই চলচ্চিত্রে বাবা-মেয়ের সম্পর্ককে খুব সুন্দর ভাবে উপস্থাপিত করা হয়েছে। পরিচালক সুজিত সরকার পরিচালিত কমেডি-ড্রামা ছবি ‘পিকু’, পুরো ফিল্ম জুড়ে পিকু (দীপিকা পাড়ুকোন) এবং তার বাবা অমিতাভ বচ্চন তর্ক করতে থাকেন। তারা একে অপরের কথা একেবারেই শোনেন না, তবে এই তর্ক-বিতর্কের মাধ্যমেই তাদের ভালোবাসা দৃশ্যমান হয়। জীবনে বিয়ে করে থিতু হওয়ার চেয়ে বাবার দায়িত্বকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে মেয়ের গল্প নিয়ে তৈরি এই ছবিটি যে কারও চোখে জল আনতে বাধ্য।

2. দঙ্গল:- সন্তানদের জীবনের ভীত তৈরি করে দেওয়ার জন্য মাঝে মাঝে বাবাকে তার সন্তানদের প্রতি কঠোর হতে হয়। এই ছবিতেও আপনি একই জিনিস দেখতে পাবেন। এই সিনেমার গল্প মহাবীর সিং ফোগাট (আমির খান), একজন প্রাক্তন কুস্তিগীর, যে তার কন্যা গীতা এবং ববিতাকে কুস্তিগীর বানাতে চায়। ছবিতে দেখা যায়, ফোগাট একজন কঠিন মাস্টারের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন যিনি তার মেয়েদের কুস্তি প্রশিক্ষণ দিতে কোন কসরত রাখেন না এবং শেষ পর্যন্ত তার মেয়ে গীতা পদক পেতে সক্ষম হন।

3. অংরেজি মিডিয়ায়:- অংরেজি মিডিয়ামের গল্পও বাবা ও মেয়েকে ঘিরে তৈরি। সন্তানদের ইচ্ছার সামনে বাবা যে কোনও চ্যালেঞ্জ নিত্য প্রস্তুত, তার জন্য যতই বাধা আসুক না কেন, তিনি পিছপা হন না। এই ছবিতেও আপনি তেমনই কিছু গল্প দেখতে পাবেন। ছবির গল্প এমন এক বাবাকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে যিনি তার মেয়েকে লন্ডনের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য যে কোনও প্রান্তে যেতে পারেন।

4. থাপ্পড়:- আমাদের সমাজে, বিয়ের পর স্বামীর দ্বারা স্ত্রী মারধর খুব বড় বিষয় নয়, এটা কমবেশি অনেক বাড়িতেই হয়ে থাকে। এমতাবস্থায়, একটি মেয়ে যখন পার্টিতে সবার সামনে তাকে থাপ্পড় মারার কারণে তার স্বামীকে ডিভোর্স দিতে চায়, তখন এটি সমাজের ঠিকাদারদের কাছে শোভা পায় না। এই ছবিতে দেখা গেছে একজন বাবা তার মেয়ের সিদ্ধান্তকে প্রশ্নবিদ্ধ না করে সমর্থন করছেন।

5. গুঞ্জন সাক্সেনা: কারগিল গার্ল:- এই ছবির পুরো গল্পটি গুঞ্জন সাক্সেনাকে ঘিরে আবর্তিত, যার স্বপ্ন একজন পাইলট হওয়ার। তার মা,ভাই মনে করেন যে কোনো উপায়ে মেয়ের মাথা থেকে পাইলট হওয়ার ভূত নামিয়ে দেওয়া দরকার‌। ছবির শুরুর দৃশ্যে দেখা যায়, গুঞ্জন সাক্সেনা তার ভাই আংশুমানের কাছ থেকে শুনতে পান যে “মেয়েরা পাইলট হয় না, তারা রান্না করে। অপরদিকে বাবা তার মেয়েকে প্রতিটি পদক্ষেপে সমর্থন করেছেন এবং তাকে পাইলট করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।

Related Articles

Back to top button