অন্যান্যপশ্চিমবঙ্গসেরা খবর

‘আমাকে কতটা ভালোবাসো?’ স্ত্রীর প্রশ্নের জবাবে চাঁদে জমি কিনে উপহার দিলেন স্বামী!

একজন প্রেমিকা তার প্রেমিককে একটা প্রশ্ন সব সময় করে থাকে। সেটি হল “তুমি আমাকে কতটা ভালোবাসো?” একজন স্ত্রী এই প্রশ্নটাই করেছিলেন আর স্বামীকে। এই প্রশ্নের উত্তরে স্বামী বলেছিলেন, ‘আউট অফ দা ওয়ার্ল্ড।’ শুধু মুখেই জবাব না, এর সাথে বউকে রীতিমতো চমকে দিয়ে বিশেষ উপহার দিয়েছেন সেই স্বামী।

কি সেই উপহার? বিবাহ বার্ষিকী উপলক্ষে স্ত্রীকে চাঁদের জমি(Moon’s Land) কিনে দিয়েছেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসিন্দা শেখ কবীরউদ্দিন। আর এই উপহার পেয়ে চোখে জল এসেছে তার স্ত্রী ঈশিকার। এমন উপহার সত্যিই আশা করা যায় না। কিন্তু এমনটাই ঘটিয়েছেন পশ্চিম বর্ধমানের দুর্গাপুরের এই দম্পতি। ৩১ বছরের কবীর দীর্ঘদিন ধরেই কর্মসূত্রে দুর্গাপুরে বসবাস করেন। সেখানে একটি রিয়েল এস্টেট সংস্থার সঙ্গে তিনি যুক্ত।

কয়েক বছর আগে গড়িয়ার বাসিন্দার সঙ্গে তার প্রথম আলাপ হয়। এরপর তাদের সম্পর্ক প্রেম পর্যন্ত গড়াতে বেশি সময় লাগেনি। তারপরে দুই পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে করেন এই যুগল। সংসার চালাতে অনেক কষ্ট করতে হয় কবিরকে কিন্তু তবুও বিবাহবার্ষিকীতে স্ত্রীকে বিশেষ কোনো উপহার দিতে চেয়েছিলেন তিনি। বুধবারই ছিল তাদের বিবাহবার্ষিকীর দিন।

আর এই দিনে স্ত্রীকে চাঁদে কেনা জমি হাতে তুলে দেন। স্বামীর দেওয়া এই উপহার পেয়ে খুশিতে কান্নায় ভেঙে পড়েন স্ত্রী। ঈশিকা বলেন, ‘এই ধরনের উপহার হতে পারে সত্যিই ভাবতেও পারছি না। আমার কাছে চাঁদের থেকেও বড় স্বামীর ভালোবাসা।’ কবীর জানিয়েছেন, গত দুমাস ধরে তিনি বিষয়টি নিয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এর জন্য রাতভর ইন্টারনেটে আমেরিকার একটি ‘Luna Society International.com’ সংস্থার ওয়েবসাইট থেকে স্ত্রীর জন্য চাঁদের জমি কিনে ফেলেন তিনি।

তবে সত্যিই কি চাঁদে জমি কেনা সম্ভব? নাকি পুরো বিষয়টাই ভুয়ো? জানা গিয়েছে, আন্তর্জাতিক একটি চুক্তির জন্য কোনো ব্যক্তি বা সংস্থা চাঁদে কোন জমি কিনতে পারে না। চাঁদ, মঙ্গলে জমি কেনার প্রলোভনেও সার্টিফিকেট দেওয়ার জন্য ইন্টারনেটে এখন সার্টিফিকেট তৈরি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ‘আউটার স্পেস ট্রিটি ১৯৬৭’ অনুসারে চাঁদে জমি কেনা বা সেই জমির ওপর কর্তৃত্ব ফলানো কখনোই সম্ভব হয়না। একমাত্র চন্দ্র অভিযানের পর চাঁদে সেই নির্দিষ্ট দেশের পক্ষে পতাকা পোঁতা সম্ভব হয়।

Related Articles

Back to top button