বিনোদনসেরা খবর

‘হতাশায় সুইসাইড না করে বসে’! আমির খানের চিন্তায় উদ্বিগ্ন প্রাক্তন স্ত্রী কিরন রাও

বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছে বলিউডের তথাকথিত মিস্টার পারফেকশনিস্ট আমির খানের ছবি ‘লাল সিং চাড্ডা’। গ্র্যান্ড প্রমোশন থেকে শুরু করে দক্ষিণী তারকাদের নিয়ে প্রচার, কোনো কিছুই ফ্লপ হওয়া থেকে বাঁচাতে পারেনি ছবিটিকে। সারা ভারত জুড়ে বয়কটের ডাক ওঠায় চরম মার খেয়েছে ‘লাল সিং চাড্ডা’।

‘লাল সিং চাড্ডা’র কপালে যে এই পরিণতি লেখা ছিলো তা আন্দাজও করতে পারেননি আমির খান। সূত্রের খবর, ওটিটিতেও সম্পূর্ণ ব্রাত্য আমিরের ছবি ‘লাল সিং চাড্ডা’। নেটফ্লিক্স সহ বহু বড়ো মাপের সংস্থা নাকি ইতিমধ্যেই মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। একাধিকবার মিটিং করার পরেও নাকি কোনো ওটিটি সংস্থাকেই রাজি করাতে পারেননি মিস্টার পারফেকশনিস্ট।

দীর্ঘ ৪ বছর পর পর্দায় ফিরেছিলেন তিনি। ছবি নিয়ে যা জল্পনা কল্পনা শুরু হয়েছিলো তাতে ধরেই নেওয়া হয়েছিলো যে, বছরের সেরা হিট হতে চলেছে এটি। আর এখন সূত্রের খবর, এই ঘটনার পর নাকি চরম হতাশায় ডুবে গেছেন আমির খান। ১৮০ কোটি খরচ করে নির্মান করা ছবি যদি খরচের ৫০ শতাংশও না তুলতে পারে তাহলে হতাশা ঘিরে ধরাটাই স্বাভাবিক।

বক্স অফিসে তুমুল ব্যর্থতায় হতাশা তো বটেই, এমনকি অবস্থা এমন পর্যায় চলে গেছে আমির নাকি আত্মহননের কথাও ভাবছেন এবার। তিনি নাকি নিজেকে রুমের মধ্যে লক করে নিয়েছেন, মিডিয়াতে এমনটাই জানিয়েছেন অভিনেতার প্রাক্তন স্ত্রী কিরণ রাও। আত্মীয়স্বজনদের থেকেও নিজেকে দূরে রেখেছেন তিনি।

সম্প্রতি বলিউড হাঙ্গামার সাথে কথা বলার সময় আমির খানের প্রাক্তন স্ত্রী কিরণ রাও জানান, “ফরেস্ট গাম্প- এর সেরা সংস্করণ তৈরি করার জন্য প্রচুর কষ্ট করেছিলো আমির। দর্শকদের এই রিজেকশন খুব বাজেভাবে আঘাত করেছে তাকে।” এখন তার সন্দেহ এই মানসিক চাপে আত্মহননের মতো চরম পথ না বেছে নেয় আমির।

সম্প্রতি, জনপ্রিয় ফিল্ম ক্রিটিক এই প্রসঙ্গে একটি ভিডিও টুইট করে ক্যাপশনে লিখেছেন, “আমির খান নিজেকে ঘরবন্দী করে নিয়েছে। এই অবস্থায় তার ভাই ফেয়জল খান কেন মজা ওড়াচ্ছে? কিরণ রাও কেন তার বিরুদ্ধে এফআইআর করার প্ল্যান করছে?” কে আর কে- এর এই টুইটের পর আমিরের সুইসাইডের খবরকে নিয়ে জল্পনা আরো ঘন হচ্ছে নেটিজেনদের মধ্যে।

Related Articles

Back to top button