বিনোদনসেরা খবর

অর্থ সাহায্য তো দূর, সামান্য শোকবার্তাও জানায়নি! অভিষেক-পত্নীর অভিযোগে মুখ খুললেন ঋতুপর্ণা

হঠাৎ করে বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা অভিষেক চ্যাটার্জীর(Abhisekh Chatterjee) মৃত্যুর পর হতবাক হয়ে গিয়েছে সকলে। তার এই অকাল প্রয়াণ মেনে নিতে পারেননি কেউই। আচমকাই হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান অভিনেতা। তবে তার মৃত্যুর পর টলিউডের অন্দরের অনেক কেচ্ছাকাহিনী সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে।

আবার তার মৃত্যুর কয়েক দিন পরেই গুজব ছড়াচ্ছে অভিষেকের পরিবারের লোকেরা নাকি অর্থকষ্টে ভুগছেন। অন্যান্য অভিনেতা-অভিনেত্রীরা টাকা দিয়ে সাহায্য করছেন। যদিও এই বিষয় নিয়ে এরপর মুখ খোলেন অভিনেতার স্ত্রী সংযুক্তা চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন যে তাকে তার পরিচিতরা জানিয়েছিলেন যেকোনো এক অভিনেতা নাকি তাকে ১০ লক্ষ টাকা দিয়েছে। যে অভিনেতার সম্পর্কে কথা উঠেছিল তার সঙ্গে অভিষেকের খুব একটা ভালো সম্পর্ক ছিল না।

আবার আরেক অভিনেত্রী ও নাকি পাঁচ লাখ টাকা দিয়েছেন বলে গুজব ওঠে। এই গুজবের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন যে তিনি কোন নাম নিচ্ছেন না তবে তারা অভিষেকের ক্যারিয়ার নষ্ট করে দেওয়ার জন্য যা যা করার সব করেছে। সেসময় অভিষেক ক্যারিয়ারের শীর্ষে ছিল, তখনই তার প্রায় ২২ টি ছবি থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়া হয়। তারা কোন শোকবার্তা পাঠায়নি আর ব্যক্তিগতভাবে অর্থসাহায্য তো দূরের কথা।

এবার এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত (Rituparna Sengupta)। তিনি এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “আমি শুনলাম যে অভিষেকের মৃত‍্যুর পর নাকি নানান বিতর্ক তৈরি হয়েছে। আমি নাকি সমবেদনা জানাইনি! আমি নিজে ওঁর স্ত্রীর সঙ্গে ফোনে কথা বলেছি। এমনকি ওঁর স্ত্রী এও জানালো যে শেষদিনে ও শুটিংয়ে যেতে চায়নি।”

প্রসঙ্গত, প্রসেনজিৎ ও ঋতুপর্ণার বিরুদ্ধে নাম না করে স্বজনপোষণের অভিযোগ এনেছিলেন অভিষেক চ্যাটার্জি। তার মৃত্যুর পরেও বারেবারে প্রসেনজিৎ ও ঋতুপর্ণার দিকে অভিযোগের আঙুল উঠেছে।

Related Articles

Back to top button