বিনোদনসেরা খবর

‘একেই বলে ভালোবাসা’, নিজের জীবনের পরোয়া না করে টুইঙ্কেলকে বাঁচিয়েছিলেন অক্ষয় কুমার!

বলিউড সুপারস্টার অক্ষয় কুমার ও বলিউড অভিনেত্রী টুইংকেল খান্না বহু বছর ধরে একসঙ্গে সুখের সংসার করছেন। অভিনয় জগতে আসার পরে দুজনের প্রেম। আর তারপরে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন তারা। বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় জুটি বলতে তাদেরকেও বোঝায়। আর বলিউডের অন্দরের এমন অনেক কাহিনী থাকে যেগুলো জানার আগ্রহ থাকে মানুষের মধ্যে।

আপনারা অনেকেই হয়ত জানেননা, একটি ছবির শুটিং চলাকালীন টুইঙ্কেলের জীবন বাঁচিয়েছিলেন অক্ষয় কুমার। এই ‘জুলমি’ ছবির শুটিংয়ের সময় দেখানো হয়েছিল অক্ষয় কুমারকে অভিনেত্রী টুইংকেল পছন্দ করতেন না। কিন্তু অভিনেত্রীর সাথে একটি দুর্ঘটনায় তার চিন্তাধারা পরিবর্তন করে দিয়েছিল। এখানে অমরেশপুরি ও ছিলেন। আর এই অমরেশ পুরির বিশস্ত দেহরক্ষী ছিলেন অক্ষয় কুমার। তিনি টুইঙ্কেলের বাবার ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন।

আর শত্রুদের হাত থেকে মেয়েকে রক্ষা করার জন্য অমরেশপুরি তার দেহরক্ষীকে নিয়োগ করেন। কিন্তু যেহেতু টুইংকেল অক্ষয়কে পছন্দ করতেন না তাই তাকে শিক্ষা দেওয়ার জন্য বন্ধুদের সঙ্গে পরিকল্পনা করে অভিনেতাকে ফাঁসানোর জন্য একটা পথ তৈরি করে। কিন্তু সেই ফাঁদে নিজেই পড়ে যান অভিনেত্রী।

তখন অভিনেতা তার নিজের জীবনের পরোয়া না করে বুকে বুলেট খেয়েও অভিনেত্রীকে বাঁচান। এরপরে অক্ষয় কুমারের প্রেমে পড়ে যান তিনি। এটি পুরোটাই সিনেমার গল্প। বাস্তবে এমন কিছু ঘটেনি। এরা দুজনে বিয়ের পরেও এত বছর হয়ে গিয়েও সুখে সংসার করছেন।

Related Articles

Back to top button