বিনোদনসেরা খবর

সিনেমাতে গুন্ডাদের পেটালেও বাস্তবে স্ত্রী-র ভয়ে থাকেন অক্ষয় কুমার, মেনে চলেন টুইঙ্কেলের দাবি, বিষ্ফোরক মন্তব্য অভিনেতার

টেলিভিশনের সবচেয়ে জনপ্রিয় সেলিব্রেটি টক শো ‘কফি উইথ করণ 7’-এর তৃতীয় পর্ব সম্প্রতি টিভিতে সম্প্রচারিত হয়েছে। এই পর্বে অতিথি হিসেবে এসেছেন বলিউডের বিখ্যাত অভিনেতা অক্ষয় কুমার এবং দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির বিখ্যাত অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু। হাসি মজা আড্ডায় বেশ জমজমাট হয়ে উঠেছিলো এই এপিসোড।

প্রসঙ্গত, এই চ্যাট শোতে নিজেদের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কিত অনেঔক মজার তথ্য প্রকাশ করেছেন দুই তারকা। আর দুই তারকার জীবনের এমনই কিছু গল্প নিয়ে বেশ চর্চা শুরু হয়েছে বি টাউনে। শো চলাকালীন কথাপ্রসঙ্গে উঠে আসে অক্ষয় কুমারের স্ত্রী টুইঙ্কল খান্নার নাম। স্ত্রী সম্পর্কে এমন কিছু কথা ফাঁস করেছেন অক্ষয় যা নিয়ে রীতিমত শোরগোল পড়ে গিয়েছে নেট দুনিয়ায়।

আসলে, এই শো চলাকালীন, করণ জোহর অক্ষয় কুমারকে টুইঙ্কল খান্নার সাথে তার বিবাহিত জীবন সম্পর্কে কিছু কথা জিজ্ঞাসা করেছিলেন। করণ জিজ্ঞেস করেন যে, একথা তো সবাই জানে যে, টুইঙ্কল প্রায়শই কিছু না কিছু মজাদার অথচ সময়াপোযোগী জিনিস লিখে থাকেন। কিন্তু অক্ষয় কীভাবে তার স্ত্রীকে একজন লেখিকা এবং তার কেরিয়ারকে সমর্থন করেন?

 

এই প্রশ্নের উত্তরে অক্ষয় জানান, “যখনই সে এরকম কিছু লেখেন, আমি তাকে বোঝানোর চেষ্টা করি যে দয়া করে সীমা অতিক্রম করোনা.. শুধু তাই নয়, আমি তার পায়ে পড়ি, আমি হাত জোড় করে বোঝানোর চেষ্টা করি যে এতে সমস্যা হবে। আর এটা বোঝাতে আমার প্রায় 2 থেকে 3 ঘন্টা সময় লাগে।”

অক্ষয়ের এই কথা শুনে রীতিমত হাসিতে ফেটে পড়েন করণ। করণ পাল্টা বলেন, ‘আমি নিশ্চিত টুইঙ্কলের এইসবে কোনো যায় আসেনা, ও তারপরও লিখতে থাকে’। এতে খিলাড়ি কুমার জানান, ‘আমার অনুরোধের পর টুইঙ্কল একটু শান্তভাবে লিখেন’। এদিকে অক্ষয়ের কথা বলার ভঙ্গি আর ধরণ দেখে হাসি চেপে রাখতে পারেননা সামান্থাও।

জানিয়ে রাখি, পাওয়ার দম্পতি অক্ষয় এবং টুইঙ্কল গত ২২ বছর ধরে একসাথে বিবাহিত জীবন কাটাচ্ছেন। দীর্ঘ দুই দশক পরও তাদের মধ্যে একইরকম কেমিস্ট্রি বজায় আছে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও হামেশাই রোমান্টিক ছবি শেয়ার করে থাকেন দুজন। এর পাশাপাশি আরভ এবং নিতারা নামে দুই সন্তান রয়েছে তাদের। স্ত্রী সন্তান নিয়ে বেশ সুখী গৃহকোণ অক্ষয় কুমারের।

Related Articles

Back to top button