For the best experience, open
https://newzshort.com
on your mobile browser.
+

অতিরিক্ত ওজনের জন্য ছাড়তে হয় একাধিক ছবি, ১৫ কেজি ওজন ঝরিয়ে কিভাবে 'ফ্যাট টু ফিট' ঐন্দ্রিলা!

13 days ago | Papiya Paul
featured
Advertisement

ওজন বেশি বলে বারবার কটাক্ষের শিকার হয়েছেন টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা সেন। শোনা যায়, এই অতিরিক্ত ওজনের জন্য নাকি বেশ কিছু ছবির অফার রিজেক্ট হয়েছিল অভিনেত্রীর। তবে সেই সব এখন অতীত, শরীরের বাড়তি ফ্যাট ঝরিয়ে ছিপছিপে চেহারায় সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন তিনি। প্রেমিকার এরকম পরিবর্তনে গর্বিত এবং আপ্লুত প্রেমিক অঙ্কুশ হাজরাও। কয়েকদিন আগেই নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে প্রেমিকার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন অভিনেতা।

Advertisement

৭১ কেজি থেকে ৫৬ কেজিতে চলে এসেছেন তিনি। ঐন্দ্রিলা ওজন কমানোর সিদ্ধান্ত সম্পর্কে জানিয়েছেন, লকডাউনে বাড়িতে বসে অনেকটাই ওজন বেড়ে গিয়েছিল। এর সাথে চারিদিকে অসুস্থতা, মৃত্যুর খবরে মানসিকভাবে বিধ্বস্ত নায়িকা শরীরচর্চার জন্য উত্সাহ পাচ্ছিলেন না। এরপর তিনি মনে করেন টলিউডে মনের মত চরিত্র পেতে গেলে তাকে শরীরচর্চা করতেই হবে। তারপরে জুন মাস থেকে শুরু করেন তার শরীর চর্চা। নায়িকা জানিয়েছেন যে জুন মাস থেকে তিনি শরীরচর্চা শুরু করেছিলেন।

প্রথমদিকে খুবই কষ্ট হতো তার। নিজের পছন্দের মিষ্টি খাওয়া একেবারেই ছেড়ে দিয়েছিলেন। যে কোন খাবার খুব কম খেতেন। প্রথম দুমাস একটুও ওজন কমেনি। অত্যন্ত কঠিন শরীরচর্চার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করেছিলেন ঐন্দ্রিলা। এই ১৫ কেজি ওজনের জন্য কোন ডায়েট পালন করতেন অভিনেত্রী? এই বিষয়েও তিনি জানিয়েছেন, তার শরীরচর্চা প্রশিক্ষক তাকে খুব অল্প অল্প করে ৬ বার খেতে বলেছিলেন। সকাল, দুপুর এবং রাতে দুটি করে ডিম খেতেন প্রত্যেকবারই কুসুম ছাড়া ডিম সেদ্ধ খেতে হতো। এর সাথে দুপুরবেলায় সবজির স্যুপ, প্রোটিন শেক বা ফল আর খিদে পেলে পেট ভরানোর জন্য ছিল শসা। রাতে থাকতো প্রোটিন শেক।

Advertisement

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Ankush (@ankush.official)

ওজন কমার বেশ কিছুদিন পর ভাত খাওয়ার অনুমতি পেয়েছিলেন ঠিকই। কিন্তু সেটাও ছিল খুব সামান্য। যদিও এখন ওজন কমে যাওয়ার পর কড়া ডায়েট থেকে তার মুক্তি মিলেছে। এখন মায়ের হাতে তৈরি খাবার ইচ্ছে হলেই খেয়ে নিতে পারেন তিনি। দুপুরে মাছ বা মাংসের ঝোল আর ভাত দিয়ে খাবারটা বেশ জমে যায়। আর সপ্তাহে একদিন ফুচকা ঐন্দ্রিলার জন্য লাগবেই লাগবে।

Advertisement
Tags :
Advertisement