বিনোদনসেরা খবর

চুটিয়ে প্রেম করতেই চেয়েছিলেন, বাবার আদেশেই তড়িঘড়ি জয়াকে বিয়ে করতে বাধ্য হন অমিতাভ!

বলিউডের অন্যতম সেরা জুটি বলতে প্রথমেই নাম উঠে আসে অমিতাভ বচ্চন ও জয়া বচ্চনের। দুজনের সুখের দাম্পত্য জীবন চলছে ৪৯ বছর ধরে। অভিনয়ের ক্ষেত্রে অমিতাভ ও জয়ার জুটি যেমন সুপারহিট ছিল, ঠিক তেমনি বাস্তবেও দুজনের জুটি সুপারহিট। তবে এই জুটির প্রেম এবং বিয়ের গল্প অনেকেই এখনও জানেন না।

মাত্র ১৫ বছর বয়সে অভিনয়ে হাতে খড়ি দেন জয়া। তার প্রথম ছবি ছিল সত্যজিৎ রায়ের বাংলা ছবি ‘মহানগর’। ওই একই সময়ে অমিতাভ বচ্চন হিন্দি সিনেমায় পা রাখেন। অমিতাভের প্রথম ছবি ‘সাত হিন্দুস্তানি’ ফ্লপ হয়েছিল। এই দুজনের একসাথে প্রথম দেখা হয়’গুড্ডি’ ছবির সেটে। ১৯৭১ সালে এই ছবিতে দুজনে একসঙ্গে কাজ করেছিলেন দুজনে। আর তারপর ধীরে ধীরে তাদের প্রেমের সম্পর্কের শুরু হয়।

এরপর ১৯৭৩ সালে ‘জাঞ্জির’ ছবিতে একসঙ্গে দেখা যায় অমিতাভ ও জয়াকে। এই ছবি সুপারহিট হয় এবং রাতারাতি তারকা হয়ে যান অমিতাভ বচ্চন। জাঞ্জীর ছবির টিম সিদ্ধান্ত নিয়েছিল এই ছবিটি সুপারহিট হলে সবাই একসঙ্গে ছুটি কাটাতে লন্ডনে যাবেন। আর এই ছবি সুপারহিট হবার পরে সকলে লন্ডন যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন। এরপর অমিতাভ বচ্চন তার বাবাকে জানিয়ে জানিয়েছিলেন যে তার সঙ্গে জয়া যাচ্ছেন।

কিন্তু অমিতাভের বাবা হরিবংশ রাই বচ্চন সেই মুহূর্তে তার ছেলেকে পরিষ্কার বলে দিয়েছিলেন বিয়ে না করে তিনি দুজনকে একসঙ্গে থাকতে দেবেন না। আর এরপরই অমিতাভ বচ্চন ঠিক করে ফেলেন তিনি পরের দিনই জয়াকে বিয়ে করবেন। সেই মতই শুরু হয় প্রস্তুতি। আর ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই গাঁটছড়া বাঁধলেন দুই অভিনেতা। ১৯৭৩ সালের ৩ জুন অমিতাভ-জয়ার বিয়ে হয়েছিল। সেদিন থেকে আজ পর্যন্ত তাঁদের সম্পর্ক অটুট। দুজনের ভালবাসার কথা এখন সকলেরই জানা। অমিতাভ নিজেই কোন এক সাক্ষাৎকারে এসে তার এই বিয়ের কথা প্রকাশ্যে জানিয়েছিলেন।

Related Articles

Back to top button