বিনোদনসেরা খবর

‘মা-বাপ মরা মেয়ে, ভীষণ বোরিং জীবন আমার’, জীবনের ওঠাপড়া নিয়ে মুখ খুললেন জবা ওরফে পল্লবী শর্মা

“কে আপন কে পর”-এর জবার কথা মনে আছে! বেশ ওঠাপড়ার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছিলো জবার সফর। একজন সাধারণ আশ্রিতা থেকে সেই বাড়ির বৌ হয়ে ওঠা এবং সর্বোপরি বিচারক হয়ে ওঠার এই গল্পের মাধ্যমেই সকলের ড্রইংরুমের অংশ হয়ে উঠেছিল জবা ওরফে পল্লবী শর্মা।

এই ধারাবাহিকের হাত ধরেই জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছে যান পল্লবী। দীর্ঘ ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে ছোটো পর্দায় রাজ করেছিলো ‘কে আপন কে পর’। একথা বলাই বাহুল্য যে, টেলিভিশনের একটি ম্যাসিভ হিট ছিলো এই ধারাবাহিক। জবা-পরমের মাখো মাখো রসায়নে মজেছিলো গোটা বাংলা।

তবে ‘কে আপন কে পর’ ধারাবাহিক শেষ হওয়ার পর থেকে টেলিভিশনের পর্দা থেকে যেন গায়েবই হয়ে গিয়েছেন অভিনেত্রী পল্লবী শর্মা। সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাক্টিভ থাকলেও ছোটো পর্দায় দেখা যায়নি তাকে। কবে তিনি ফিরবেন সেই খবরও কেউ জানেনা।

যদিও দিনকয়েক আগেই জি বাংলার জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো ‘দিদি নং 1’-তে দেখা মিলেছে অভিনেত্রীর। শো’তে এসে বেশ চুটিয়ে মজা করেছেন রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে। এমনকি এইদিন নিজের জীবনের নানা কথা ভাগও করে নিয়েছেন অনুরাগীদের সাথে।

পল্লবীর কথা থেকেই জানা গেলো, শৈশবেই তার বাবা-মা তাকে ছেড়ে চলে গেছে। ছোটো থেকেই পিসির কাছেই মানুষ। দূর্ভাগ্যজনকভাবে দু-বছর আগে সেও পিসিকেও হারিয়েছেন। এরপর থেকে আপাতত একাই রয়েছেন অভিনেত্রী।

পাশাপাশি বিয়ে নিয়েও কথা বলতে দেখা গেলো তাকে। পল্লবীর কথায়, এইমুহুর্তে জীবনে কেউ নেই তার। যদি কখনও কাউকে মনে ধরে তাহলে তাকেই বিয়ে করবেন তিনি। নায়িকার মতে, তিনিই বোধহয় টলিপাড়ার একমাত্র নায়িকা যে, পার্টি করতে পছন্দ করেনা। বন্ধুদের থেকেও দূরত্ব বাড়িয়ে ফেলেছেন, খুবই বোরিং জীবন তার। তবে মানুষ তার জীবনের এই গল্প শোনার পর যেন আরো বেশি করে আপন করে নিয়েছে পল্লবীকে।

Related Articles

Back to top button