বিনোদনসেরা খবর

অনস্ক্রিনে রুদ্রদার সঙ্গে প্রেমের কারণেই ভাঙল অফস্ক্রিন প্রেম! বিচ্ছেদের পর প্রথমবার মুখ খুললেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা সাহা

টেলিভিশনের অন্যতম জনপ্রিয় মুখ ঐন্দ্রিলা সাহা। জি বাংলায় সম্প্রচারিত ‘মিঠাই’ ধারাবাহিকে পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। অনবদ্য অভিনয় আর মিষ্টি চেহারা দিয়ে ইতিমধ্যেই সকলের মন জিতে নিয়েছেন এই টেলি অভিনেত্রী। ডান্স বাংলা ডান্স জুনিয়র দিয়ে ইন্ডাস্ট্রিতে সফর শুরু হয়েছিলো তার।

প্রসঙ্গত, এই মুহূর্তে ‘মিঠাই’ ধারাবাহিকে নিপার চরিত্রে দেখা যাচ্ছে তাকে। ধারাবাহিকে কয়েকদিন আগেই তার বিয়ের পর্ব দেখানো হয়েছে। যদিও এটাই প্রথম নয়, এর আগেও বহুবার তার বিয়ে হতে হতে ভেঙে গিয়েছে। তবে এবার আর কোনো গন্ডোগোল নয়। হল্লা পার্টির সাহায্যে বিয়ে করে তবেই ক্ষান্ত হয়েছে নিপা।

তবে অনস্ক্রিনে বিয়ে সম্পন্ন হলেও অফস্ক্রিনে যেন একটু গন্ডোগোল বেঁধেছে তার জীবনে। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী স্কুল জীবন থেকেই একজনের সাথে মনের আদানপ্রদান ঘটে তার। যদিও সেই ব্যক্তি ক্যামেরার পেছনেই থাকেন। দীর্ঘদিন সম্পর্কে ছিলেন দুজন। কিন্তু সদ্য নাকি তাল কেটেছে তাদের মধ্যে।

জানা গেছে, সেই ব্যক্তির নাম স্নেহাশীষ। দুই বাড়িতেই জানতো তাদের সম্পর্কের কথা। একটা সময় সোশ্যাল মিডিয়াতেও হামেশাই দেখা যেতো এই মিষ্টি জুটিকে। ঐন্দ্রিলার ব্যক্তিগত প্রোফাইল জুড়েও ছিলো খালি স্নেহাশিষের ছবি। তবে হঠাৎ কী এমন হলো যে দুজনেই ইতি টানলো তাদের সম্পর্কে।

এই বিষয়ে ঐন্দ্রিলাকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি জানিয়েছেন, ‘সম্পর্কে বোঝাপড়া কমে এসেছিলো তাই বাধ্য হয়েই সরে এসেছি।’ অবশ্য নেটিজেনদের ধারণা পর্দার রুদ্রর কারণেই ভেঙে গেছে ঐন্দ্রিলা দেবাশিষের সম্পর্ক। যদিও এই জল্পনাকে উড়িয়ে দিয়ে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ‘এর সাথে ফাহিম জড়িত নয়। পর্দার রুদ্রদা বাস্তবে আমার দাদা।’

যদিও ব্রেকাপ নিয়ে খুব একটা ভাবিত নয় ঐন্দ্রিলা। সে এখন নিজের কাজ নিয়েই মনোযোগী। এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, “আমি ভীষণ খুশি খুশি ভাবে একা।” অর্থাৎ বোঝাই যাচ্ছে যে ব্রেকাপের পর নিজেকে আরো বেশি করে সময় দিচ্ছেন তিনি। এখন তিনি চুটিয়ে কাজ করতে চান আর উপভোগ করতে চান নিজের সিঙ্গেলহুড।

Related Articles

Back to top button