অন্যান্যসেরা খবর

দেশের সবথেকে লম্বা পরিবার, অতিরিক্ত উচ্চতার কারণে বিদেশ থেকে আসে জুতো, পোশাক!

পৃথিবীর (World) প্রতিটি মানুষের আকৃতিগত দিক থেকে প্রাধান্য লক্ষ্য করা যায়। কেউ বেশি লম্বা তো কেউ খাটো। যদিও বেশির ভাগ মানুষেরই লম্বা হওয়ার ইচ্ছে মনে মনে থাকে। এমনকি প্রত্যেক বাবা-মায়েরা চান তাদের সন্তানেরা লম্বা হোক। তবে মানুষের উচ্চতা বংশগত ধারণার ওপর নির্ভর করে। আজকের এই প্রতিবেদনে পৃথিবীর সবচাইতে লম্বা পরিবার সম্পর্কে আপনাদেরকে জানাবো।

এই পরিবারের লোকেরা সকলেই প্রচুর লম্বা। এ পৃথিবীতে সবচেয়ে বেটে পরিবার যেমন রয়েছে ঠিক তেমনি আবার লম্বা পরিবার আছে। এই লম্বা পরিবারের নাম হল মহারাষ্ট্রের (Maharastra) কুলকার্নি পরিবার। এই পরিবার মহারাষ্ট্রের পুনের বাসিন্দা। এই পরিবারের কর্তার নাম হল সরোদ কুলকর্ণী, আর তার পত্নীর নাম সঞ্জত কুলকার্নি। এই পরিবার গোটা পৃথিবীর কাছে লম্বা পরিবার হিসেবে স্বীকৃত।

এই সরোদ কুলকার্নির উচ্চতা প্রায় ৭ ফুট ১.৫ ইঞ্চি আর তার স্ত্রীর উচ্চতা প্রায় ৬ ফুট ২.৫ ইঞ্চি। এই ব্যক্তি ছোটবেলা থেকেই তার লম্বা উচ্চতার কারণে খেলাধুলার সাথে যুক্ত হয়েছিলন। এই দম্পতির দুই কন্যা সন্তান রয়েছে। এরাও তাদের বাবা মায়ের মত লম্বা। তাদের বড় মেয়ে মুরুগা কুলকার্নির উচ্চতা ৬ ফুট ১ ইঞ্চি এবং ছোট কন্যা সানিয়া কুলকার্নির উচ্চতা ৬ ফুট ৪ ইঞ্চি।

আপনারা জানলে অবাক হবেন, তাদের এত উচ্চতার জন্য তারা পাবলিক ট্রান্সপোর্ট ব্যবহার করতে পারেন না। তাই তাদের বেশির ভাগ সময়ে পায়ে হেঁটে কিংবা নিজেদের স্কুটিতে যাতায়াত করেন। এমনকি তাদের পোশাক ও জুতো ইউরোপীয় দেশ থেকে আনতে হয়। তারা এত লম্বা হওয়ার জন্য তাদের বাড়ির উচ্চতা ও জানলা দরজার উচ্চতা অনেক বেশি। ১৯৮৯ সালে তাঁরা বিশ্বের সবথেকে উচ্চতাসম্পন্ন জুটি হিসেবে খেতাব পেয়েছিলেন।

Related Articles

Back to top button