বিনোদনভিডিওসেরা খবর

মরল ‘মিঠাই’ এল ‘মিঠি’, নতুন প্রোমোতে ‘খড়কুটো’র ছায়া দেখে ক্ষুব্ধ অনুরাগীরা

বাংলার সেরা ধারাবাহিকগুলির মধ্যে অন্যতম হল ‘মিঠাই’। একটা সময় টিআরপি তালিকায় রাজ করেছে এই ধারাবাহিকটি। কিন্তু সম্প্রতিকালে সেটা বদলে গিয়েছে নতুনের ভিড়ে কিছুটা কমেছে মিঠাইয়ের জনপ্রিয়তা। টিআরপি কমতে কমতে এখন একেবারেই তলানিতে। এক নাগাড়ে কম টিআরপি পেতে পেতে এবার বিরাট চমক দিয়ে দিল ‘মিঠাই’ (Mithai)। গল্পে শেষমেষ মারা যাচ্ছে নায়িকা মিঠাই রানী। তবে কি সত্যি হবে দর্শকদের ধারণা?

আসলে সাম্প্রতিক কালে ‘মিঠাই’র সময়টা বিশেষ ভালো যাচ্ছেনা। একটা সময় লাগাতার ৫৬ বার বেঙ্গল টপারের রেকর্ড করা এই ধারাবাহিকের জায়গা হয়েছে দশম স্থানে‌। নতুনদের ভিড়ে শুধু বাংলা সেরার সিংহাসন নয়, ছেড়ে দিতে হয়েছে পুরনো টাইম স্লটও। হ্যাঁ, আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে প্রাইম স্লটের পরিবর্তে ‘মিঠাই’ দেখা যাবে সন্ধ্যা ৬ টায় ‘পিলু’র স্লটে।

এমতাবস্থায় ধারাবাহিকে আসতে চলেছে বেশ বড়োসড়ো পরিবর্তন? এমনিতেই বেশ কিছুদিন ধরে যেন ঝড়ের গতিতে এগোচ্ছে সিরিয়াল। মিঠাইয়ের কোল জুড়ে এসেছে তার ছোট্ট গোপাল। গোটা মোদক পরিবার এই খুশিতে আত্মহারা। এইমুহুর্তে প্রত্যেকটি সদস্যই বেশ দায়িত্ব নিয়ে সামলাচ্ছেন তাদের ছোট্ট গোপালকে।

সবকিছু ঠিক থাকলেও কোথাও যেন একটা খটকা রয়েই যাচ্ছে। এতোদিন শোনা যাচ্ছিল, সন্তান প্রসব করতে গিয়েই নাকি মৃত্যু হবে ‘মিঠাই’ রানির। তবে সেই ঘটনা না ঘটলেও নতুন কিছু যে হবে সেই বিষয়ে দর্শকরা নিশ্চিত। কারণ নতুন প্রোমো প্রমাণ করে দিল, যা রটে তা বাস্তবিকই ঘটে।

আসলে সাম্প্রতিক প্রোমোতে দেখানো হয়েছে, মিঠাই মারা গিয়েছে। স্ত্রীর ছবির দিকে তাকিয়ে সিড তার কাছে ছেলে শাক‍্যর দস‍্যিপনার নালিশ জানাচ্ছে। আর ঠিক সেই সময়ই মনোহরার সামনে এসে উপস্থিত হয়েছে ‘মিঠি’। তাকে দেখে তো রীতিমতো হতবাক হয়ে গেছে উচ্ছেবাবু অর্থাৎ সিদ্ধার্থ। কারণ মিঠি যে পুরোপুরি আগের ‘মিঠাই’ রানি। আর এদিকে ‘মিঠাই’র ছবিতে মালা দেওয়া।

প্রোমো দেখে বেশ ভালোই চটেছে মিঠাই অনুরাগীরা। সৌমিতৃষা ধারাবাহিক থেকে না সরলেও এভাবে ‘মিঠাই’র মৃত্যু যেন কিছুতেই মেনে নিতে পারছেনা তারা। ক্ষুব্ধ দর্শকদের প্রশ্ন, ‘একটা ভাল সিরিয়ালকে নরমাল রাখতে কী সমস‍্যা? সেই খড়কুটোর মতো না করলে চলছিল না’? আবার কেউ বলেছে, ‘যার নামে সিরিয়াল তাকেই মেরে দিল? লেখিকা কি গাঁজা খান?’ এমতাবস্থায় হারিয়ে যাওয়া গৌরব আবার ফিরবে নাকি আরো হারিয়ে যাবে তা তো সময়ই বলবে।

Related Articles

Back to top button