বিনোদনসেরা খবর

‘এ কেমন মহিষাসুর যাকে ফুঁ দিলেই উড়ে যায়’, মহিষাসুর অবতারে সৌরভকে দেখা মাত্রই হাসির রোল নেটপাড়ায়

ইতিমধ্যেই বেজে গিয়েছে দূর্গাপূজার ডঙ্কা। আগামি ২৫ সেপ্টেম্বর মহালয়া আর তার দিনকয়েক পরেই মায়ের আগমন। বাংলার অলিতে গলিতে শুরু হয়েছে মাকে বরণ করার প্রস্ততি। এমতাবস্থায় পুজোর আগে বাঙালির সবচেয়ে বড়ো আকর্ষণ হলো মহালয়া।

মহালয়ার দিন ভোর হতে না হতেই বাঙালির ঘরে ঘরে শোনা যায় বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের (Birendra Krishna Bhadra) কন্ঠে মহিষাসুরমর্দিনীর আরাধনা। তবে বিগত কয়েকবছর ধরে রেডিও-এর পাশাপাশি টেলিভিশনের পর্দাতেও, মহালয়া দেখার উৎসাহ কম থাকে না। এইদিন সকালে বিভিন্ন চ্যানেলে দেবী দুর্গার মহিষাসুরমর্দিনী রূপে একাধিক কাহিনী দেখানো হয়।

টেলিভিশনের খুব চেনা অভিনেতা-নেত্রীদের নিয়েই উপস্থাপিত হয় এই অনুষ্ঠানগুলি। দেবদেবী, অসুর সমস্ত চরিত্রে তারাই অভিনয় করে থাকে। ব্যতিক্রম নয় এবছরটাও। স্টার জলসা থেকে শুরু করে জী বাংলা প্রতিটি চ্যানেলই তাদের মহালয়ার অনুষ্ঠানের প্রস্ততি নিতে শুরু করে দিয়েছে। টেলিভিশন থেকে সোশ্যাল মিডিয়া সবজায়গায় প্রচারও চলছে জোর কদমে।

সূত্রের খবর, স্টার জলসায় যে অনুষ্ঠানটি সম্প্রচারিত হবে তার নাম দেওয়া হয়েছে “মা চন্ডী”। এই চ্যানেলে মহামায়ার মহিষাসুরমর্দিনী রূপে হাজির হবেন সোনামনি সাহা। এদিকে মায়ের অপর একটি রূপে হাজির হবেন অভিনেত্রী শোলাঙ্কি রায়। এছাড়াও দেবীর অন্যান্য সব রূপে হাজির হবেন বাকি তারকারা।

এদিকে দেবাদিদেব মহাদেবের চরিত্রে আমরা দেখতে পাবো অভিনেতা অভিষেক বসুকে। অপরদিকে মহিষাসুরের ভূমিকায় থাকছেন সৌরভ দাস। এখন এই সৌরভ নিজের কেরিয়ার টেলিভিশন দিয়ে শুরু করলেও বর্তমানে সে এখন বড়ো পর্দা এবং ওটিটি প্লাটফর্ম দুই জায়গাতেই চুটিয়ে কাজ করছেন। সৌরভ অভিনীত সবচেয়ে প্রসংশিত ওয়েব সিরিজ হলো “মন্টু পাইলট”।

সম্প্রতি মহিষাসুর রূপে তার প্রথম লুক প্রকাশ্যে এনেছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। ওটিটি বা বড়ো পর্দায় তার অভিনয় প্রশংসিত হলেও সৌরভের এই লুক দেখে ব্যাপক ট্রোলিং শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কেউ লিখেছেন, ‘মন্টু, মন্টুর নায়িকা দুজনেই আছে দেখছি! বাহ বেশ সন্টু-মন্টু ব্যাপার।’ আবার কেউ বললেন ‘তালপাতার সেপাই’ তো কেউ বললেন ‘হাওয়া দিলেই উড়ে যাবে’। আবার একজন বললেন ,’দেখেই তো মনে হচ্ছে গাঁজা খেয়ে দাড়িয়ে পড়েছে। এ তো যুদ্ধের আগেই গড়িয়ে পড়ে যাবে।’ মহালয়া শুরুর আগেই এইরকম মন্তব্যে ছেয়ে গেছে সোশ্যাল মিডিয়া।

Related Articles

Back to top button