বিনোদনসেরা খবর

আর কোনো লুকোচুরি নয়! বাস্তবে সাতপাক ঘুরবে ‘মোহদীপ’ জুটি প্রতীক-সোনামণি! অকপট অভিনেতা

বাঙালির বিনোদনের ক্ষেত্রে এক জনপ্রিয় মাধ্যম হল সিরিয়াল। সারাদিন যতই ব্যস্ততা থাকুক সন্ধ্যেবেলা একের পর এক সিরিয়াল দেখতে টিভির সামনে বসে পড়েন দর্শকেরা। আবার বাংলার দুই জনপ্রিয় চ্যানেল জি বাংলা এবং স্টার জলসার মধ্যে এই ধারাবাহিক নিয়ে জোর প্রতিদ্বন্দিতা চলে। বাংলার এমনই এক জনপ্রিয় মেগা ধারাবাহিক ছিল ‘মোহর’। যা মাত্র দু’দিন আগেই শেষ হয়েছে। সেই ২০১৯ সালের অক্টোবর মাসেই শুরু হয়েছিল এই ধারাবাহিক।

প্রথমদিকে এই ধারাবাহিকে টিআরপি রেটিং দুর্দান্ত থাকলেও ধীরে ধীরে টিআরপি তলানিতে গিয়ে ঠেকেছিল। আর এরপরই গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল যে সেই মুহূর্তে ধারাবাহিক শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু সেটি হয়নি বরং সন্ধ্যেবেলার পরিবর্তে দুপুরবেলায় ধারাবাহিকে টাইম স্লট ঠিক করা হয়েছে। সম্প্রতি টলিউড অভিনেতা অভিষেক চ্যাটার্জীর অকালপ্রয়ানের পর ধারাবাহিক একেবারে বন্ধ করে নেওয়া দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্মাতারা। এই মৃত্যু প্রসঙ্গে সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে দর্শকের পছন্দের শঙ্খ অর্থাৎ অভিনেতা প্রতীক সেন জানিয়েছেন, ‘মিঠু দার শূন্যস্থান কখনোই পূরণ হবার নয়। তাই কাহিনীকার লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের অনুরোধ ছিল এবার শেষ হোক ধারাবাহিক। জোর করে চালানোর কোনো মানে নেই।’

এই সিরিয়ালের শুরুর দিকেই শঙ্খ স্যারের জেঠুমণির চরিত্রে অভিনয় করতেন প্রয়াত অভিনেতা সন্তু মুখোপাধ্যায়। এরপর তার মৃত্যুর পর ওই শূন্যস্থান পূরণ করেছেন অভিনেতা দুলাল লাহিরি। তবে দর্শকদের এই জনপ্রিয় ধারাবাহিক শেষ হয়ে যাবার পর মন ভালো নেই ভক্তদের। আর এই প্রসঙ্গে প্রতিক সেন বলেছেন, “বড্ড ফাঁকা লাগছে। মোহর এতটাই জায়গা জুড়ে ছিল। সবাই শঙ্খ-মোহরকে এত ভালোবেসেছেন।” তবে মাঝে মধ্যেই মোহর এবং শঙ্খের বাস্তব জীবনের সম্পর্ক নিয়ে কানাঘুষা শোনা যায়। যদিও এই সম্পর্ক নিয়ে প্রতীক কিংবা সোনামণি কেউই কোনো মন্তব্য করেননি।

তবে এবার সম্প্রতি এই সম্পর্ক নিয়ে প্রতীক বলেছেন, “আমাদের জুটিকে জনপ্রিয় করেছেন দর্শক। তাই সুযোগ পেলে আগামী দিনে আবারও পর্দায় জুটি বাঁধতে রাজি আছি।” তবে বাস্তবে নিজেদের এই সম্পর্ক নিয়ে প্রতীক বলেছেন, “দর্শকদের উপরেই আবারও নির্ভর করছি। ওঁরাই বরং ঠিক করুন, বাস্তবেও কি মোহর-শঙ্খ এক ছাদের নীচে থাকবে?” অর্থাৎ এই কথাতেই মনে করা হচ্ছে, বাস্তবেও হয়তো জুটি বাঁধতে পারেন শঙ্খ-মোহর।

Related Articles

Back to top button