বিনোদনসেরা খবর

‘শুধু অভিনেতারাই সুপারস্টার, অভিনেত্রীরা নন’! ইন্ডাস্ট্রির নোংরামো নিয়ে মুখ খুললেন রবিনা ট্যান্ডন

বলিউড মানেই ভেদাভেদ, গসিপ আর হাজারো কন্ট্রোভার্সি। অভিনেতা আর অভিনেত্রীদের পারিশ্রমিকের ভেদাভেদ নিয়ে তো চর্চা চলতেই থাকে। একই ছবিতে দুজনের পারিশ্রমিক দুরকম কেন হবে? এর আগেও এই নিয়ে মুখ খুলেছেন অনেকেই। আর সম্প্রতি সেই তালিকায় নাম লেখালেন বি টাউনের অন্যতম গ্ল্যাম ডিভা রবিনা ট্যান্ডন।

শুধু অভিনেতারাই সুপারস্টার, অভিনেত্রীরা নন? সম্প্রতি দেশের মিডিয়ার সামনে ক্ষোভ উগরে দিলেন রবীনা ট্যান্ডন। চিরকাল পুরুষরাই সৌন্দর্য উপভোগ করেন আর মহিলাদের তো কেবলই সৌন্দর্য দিয়ে বিচার করা হয়। যুগ শেষ, সৌন্দর্য শেষ আর তাতেই অভিনেত্রীদের কদরও শেষ। কই পুরুষদের বেলা তো এমনটা হয়না। প্রশ্ন তুলেছেন রবিনা।

এক সাম্প্রতিক সাক্ষাৎকারে রবিনা জানান, ‘আমি মিডিয়াকেও জিজ্ঞাসা করেছি, কেন অভিনেতা ও অভিনেত্রীদের বিচারের আলাদা মানদণ্ড থাকবে? যখন আমির খান ২-৩ বছরের বিরতি নিয়ে আবার কাজে ফিরলেন, সেটাকে ‘কামব্যাক’ বলা হল না। বলা হবে না, ‘৯০-এর দশকের সুপারস্টার আমির এখন আমাদের সঙ্গে রয়েছেন’।’

পাশাপাশি অভিনেত্রী আরো বলেন, ‘অনেক প্রতিবেদনে বরং দেখি, ‘৯০-এর দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিত এখন এই সব করছেন। কী ভাবে প্রতিনিয়ত এই দৃষ্টিভঙ্গিকে সমর্থন করা হচ্ছে? সলমন খান বা সঞ্জয় দত্তের বয়স নিয়ে এ ধরনের কথা হওয়ার সম্ভাবনা নেই কিন্তু!’

তবে এই আলোচনার মধ্যে নিজের বক্তব্য রাখেন পঙ্কজ ত্রিপঠীও। অভিনেতার মতে, আজকের ডিজিটাল যুগে ‘স্টারডম’ কিংবা প্রতিপত্তি কাজে লাগেনা। মানুষ এখন ভালো গল্প খোঁজে। পঙ্কজের মতে, যেখানে ভালো কন্টেন্ট মানুষ সেখানেই ভিড় জমাবে।

অভিনেতার কথায়, ‘কার সিক্স প্যাক আছে, আর কার নেই— এ সব আর দেখা হয় না। অবশ্যই এটা বড় পর্দায়ও গুরুত্ব পাওয়ার কথা নয়। ভাল গল্প হলে, ৩০ সেকেন্ড পরে লোকে এ সব ভুলে সিনেমায় মন দেয়। আমার মনে হয়, বয়স, চেহারা ওটিটিতে কোনও আলাদা প্রভাব ফেলে না।’ পঙ্কজের মুখের কথা কেড়ে নিয়ে কটাক্ষ করেন রবিনা, ‘ প্রশংসা পেলে অতি বিনয়ী হয়ে পড়ার অভ্যাস ভাল নয়!’

Related Articles

Back to top button