বিনোদনসেরা খবর

মদ খেয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন নীতু কাপুর, উপহার স্বরূপ মিলেছিলো জুতো আর পাথর! অকপট স্বীকারোক্তি অভিনেত্রীর

সম্প্রতি খবরের শিরোনামে জায়গা করে নিয়েছেন নীতু কাপুর। খুব শীঘ্রই জুগ জুগ জিও ছবির হাত ধরে বড়ো পর্দায় কাম ব্যাক করবেন তিনি। এই ছবিতে নীতুর সাথে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন অনিল কাপুর, বরুণ ধাওয়ান এবং কিয়ারা আডভানি। বাকি স্টার কাস্টদের সাথে নীতুও জোরেশোরে ছবিটির প্রচার করতে মাঠে নেমে পড়েছেন। আর এই ছবির প্রচারেই নীতুর মুখ থেকেই এমন কিছু অজানা তথ্য উঠে এসেছে যা খুব কম মানুষই জানেন। কার্যত এই সব গল্প শুনে হতবাক নেটবাসিরা।

প্রচারের একটি অনুষ্ঠানে নীতু তার আর ঋষি কাপুরের বিয়ের গল্প বলছিলেন। এইদিন নীতুর মুখ থেকেই শোনা গেলো বিয়ের রাতে কীভাবে অজ্ঞান হয়ে পড়েছিলো এবং অবশেষে বাকি লোকজন তাদের মদ্যপ অবস্থায় উদ্ধার করে। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই রীতিমত শোরগোল পড়ে গিয়েছে নেটিজেনদের মধ্যে।

নীতুর কথায়, তার আর ঋষির বিয়ের সময় এত লোক এসেছিল যে ভিড় দেখে দুজনেরই প্রায় অজ্ঞান হয়ে যাওয়ার মতো অবস্থা। গেল। শুধু তাই নয়, পরিস্থিতি দেখে দুজনেই এতোটাই উত্তেজিত হয়ে পড়েছিলেন যে নিজেদের শান্ত করার জন্য ব্র্যান্ডি পান করেন তারা। এমতাবস্থায় নীতুর ব্র্যান্ডির পরিমাণ একটু বেশিই হয়ে যায় এবং ঐ অবস্থাতেই সাত পাকে ঘোরেন তিনি।

সম্প্রতি একটি চ্যানেলে নীতু জানান, তার বিয়েতে প্রায় ৫ হাজারেরও বেশি মানুষ এসেছিল। বিয়েতে সামিল হয়েছিলেন মিস্টার ইন্ডিয়া খ্যাত অনিল কাপুরও। তবে এর চেয়েও মজার ব্যাপার হলো, বিয়েতে উপস্থিত ছিলো বেশ কিছু পকেটমারও। আর তারা নবদম্পতিকে উপহারও দিয়ে যান। পরে সেই উপহারের প্যাকেট খুললে দেখা যায় সেখানে পুরোনো চপ্পল আর পাথর ছাড়া আর কিছুই নেই। এই প্রসঙ্গে নীতু জানিয়েছেন, ” সেই লোকেরা বিয়ের বেশভূষায় এসেছিলেন এবং আমরা ভেবেছিলাম তারা অতিথি। এত বড় বিয়ে, কেউ কিছু জানত না। বিয়ের পর উপহারগুলো পরীক্ষা করে দেখলাম তাতে পাথর ও চপ্পল রয়েছে।”

অভিনেত্রীর কথায়, “বিয়েতে আমি অজ্ঞান হয়ে গেছিলাম কারণ সেখানে অনেক লোক ছিলো। অপরদিকে আমার স্বামীও ভিড় দেখে ঘাবড়ে গিয়ে ঘোড়ায় চাপার ঠিক আগের মুহূর্তে অজ্ঞান হয়ে যায়। তাই তখন তিনি ব্র্যান্ডি নিয়েছিলেন। এদিকে আমিও ব্র্যান্ডি খেয়ে নিজেকে সুস্থ করি। এমনকি সাত পাকে ঘোরার সময়ও আমি মদ্যপ অবস্থায় ছিলাম।

নীতুর চলচ্চিত্র জুগ জুগ জিও সম্পর্কে কথা বলতে গেলে এই ছবিটি আজই, ২৪ জুন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে। ঋষি কাপুরের মৃত্যুর পর এই প্রথম কোনো ছবিতে কাজ করেছেন নীতু। এর আগে, নীতুকে শেষ দেখা গিয়েছিল ২০১৩ সালে বেশারম ছবিতে। এই ছবিতে নীতুর সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেছিলেন ঋষি কাপুর ও রণবীর কাপুরও।

Related Articles

Back to top button