অন্যান্যভিডিওসেরা খবর

OT-তে চিকিৎসাধীন মুমূর্ষ রোগী, রাস্তায় যানজট থাকায় ৪৫ মিনিট দৌড়ে হাসপাতালে পৌঁছালেন ডাক্তারবাবু, রইল ভিডিও

চিকিৎসকদের হাতেই আমাদের মরা বাঁচা। একটা মরণাপন্ন মানুষকে সাক্ষাৎ মৃত্যুর হাত থেকে ফিরিয়ে আনার ক্ষমতা রাখেন তারা‌। সেই কারণেই এই প্রফেশনকে নোবেল প্রফেশন বলা হয়। বর্তমান সময়ে একাধিক বিক্ষিপ্ত ঘটনার জেরে চিকিৎসকমহলকে কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হলেও এবার এমন একটি ঘটনা সামনে এসেছে যা শুনলে চমকে উঠবেন সবাই।

প্রসঙ্গত, ভারতের যানজট এক অন্যতম বড় সমস্যা। ট্রাফিকের জন্য বহু সময় আমাদের ট্রেন বা ফ্লাইট মিস হয়ে যায়। এমনও হয়েছে যে এই জ্যামের কারণে রোগীর প্রাণহানি অবদি হয়েছে। সম্প্রতি যানজটে আটকে পড়ে এমন নজিরবিহীন উদাহরণ তৈরি করলেন এক ডাক্তারবাবু যা দেখে ধন্য ধন্য করছে সবাই।

সূত্রের খবর, অপারেশন থিয়েটারে এক রোগী অপেক্ষা করছে ঐ ডাক্তারবাবুর জন্য। আর এদিকে তীব্র যানজটে আটকে পড়েছেন তিনি। সবশেষে কোনো উপায় না দেখে গাড়ি ছেড়ে দৌড় লাগালেন তিনি। একটানা ৪৫ মিনিট দৌড়ে তিন কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে পৌঁছে যান হাসপাতালে। জানা গেছে ঐ ডাক্তারবাবুর নাম গোবিন্দ নন্দকুমার, তিনি বেঙ্গালুরুর সার্জাপুরের মণিপাল হসপিটালের গ্যাস্ট্রোএন্টেরেলজির সার্জন।

সম্প্রতি এই নিয়ে একটি ভিডিওও ব্যাপক ভাইরাল হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে। ভাইরাল এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, রাস্তাতে ছুটে চলেছেন ওই চিকিৎসক। সূত্রের খবর, কর্মসূত্রে গোবিন্দ নন্দকুমার বেঙ্গালুরুর মণিপাল হাসপাতালের ডাক্তার। গত ৩০ অগাস্ট তার একটি এমার্জেন্সি অস্ত্রপাচার করার কথা ছিলো। সকালে যখন হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওনা দেন সেই সময় প্রবল বৃষ্টির জেরে রাস্তায় জল জমে যায়। ফলে সৃষ্টি হয় তীব্র যানজট।

সেইসময়ই আর কোনো উপায় না দেখে দৌড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন তিনি। এই প্রসঙ্গে নন্দকুমার জানিয়েছেন, ‘‘আমাকে তখন মণিপাল হাসপাতালে পৌঁছতেই হত। যদিও, প্রবল বৃষ্টি ও জমা জলের কারণে কয়েক কিমি পর্যন্ত রাস্তায় যানজট ছিল। তাই আমি আর সময় নষ্ট করতে চাইনি। হাসপাতালে অপারেশনের জন্য রোগীরা না খেয়ে ছিলেন। আমি তাদের বেশিক্ষণ ধরে অপেক্ষা করাতে চাইনি। সে কারণেই দৌড়ে হাসপাতালে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিই।’’

প্রসঙ্গত, মাঝে মধ্যেই ডাক্তারদের বিরুদ্ধে চিকিৎসার গাফিলতির অভিযোগ আসে। এমতাবস্থায় এইরকম একটা খবর শুনে ডাক্তারবাবুকে স্যালুট জানিয়েছে আপামর দেশবাসী। শুধু তাই নয়, গত ১৮ বছর ধরে একাধিক জটিল অস্ত্রোপচার করেছেন গোবিন্দ নন্দকুমার। পরিস্থিতি যাই থাক সবকিছুর উর্ধ্বে একজন চিকিৎসকের কাছে রোগীদের প্রতি দায়িত্ববোধটাই যে প্রথম প্রায়োরিটি সেই বিষয়টিই স্পষ্টভাবে ফুটে উঠেছে এই ঘটনায়।

Related Articles

Back to top button