বিনোদনসেরা খবর

ক্যাটরিনাকে লঞ্চ করাতে গিয়ে এতবড়ো ধাক্কা খেয়েছিলেন জ্যাকি শ্রফ! বাড়ির জিনিসপত্র অবধি বিক্রি করতে হয়েছিল অভিনেতাকে

২০০৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ব্ল্যাক কমেডি থ্রিলার ঘরানার ছবি হলো বুম। এই ছবির হাত ধরেই বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেন গ্ল্যামার কুইন ক্যাটরিনা কাইফ। ছবি নিয়ে সবার বহু প্রত্যাশা থাকলেও বক্স অফিসে রীতিমত মুখ থুবড়ে পড়ে বুম। শুধু তাই নয়, ফ্লপের ধাক্কা এতোটাই ছিলো যে এটি জ্যাকি শ্রফকে সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস করে দেয়।

প্রসঙ্গত, এই ছবির প্রযোজনার দায়িত্বে ছিলেন জ্যাকি শ্রফের স্ত্রী আয়েশা শ্রফ। ‘বুম’-কে মাস্টারপিস বানানোর জন্য কোনো কসরতই ছাড়েননি তিনি। অমিতাভ বচ্চন, জ্যাকি শ্রফ, গুলশান গ্রোভার, পদ্মলক্ষ্মী, মধু সাপ্রে, জিনাত আমান-এর মতো এক গুচ্ছ অভিজ্ঞ তারকাকে কাস্ট করা হয়েছিলো ছবিতে। কিন্তু কথায় আছে না, ভিত শক্ত না হলে, যত টাকাই খরচ করা হোক না কেন, সেই অট্টালিকা ভেঙেই যায়। ‘বুম’-র ক্ষেত্রেও কিছুটা তাই হয়েছিলো।

কাইজার গুস্তাদ পরিচালিত এই ছবিটির মূল বিষয়বস্তু ছিলো ফ্যাশন জগত ও আন্ডারওয়ার্ল্ডের মধ্যে সংযোগ। ছবিতে এক ডনের চরিত্রে অভিনয় করেছেন অমিতাভ বচ্চন। দর্শক টানতে ছবির একটা বিরাট অংশের শুট করা হয়েছিলো দুবাইতে। কিন্তু ছবির চিত্রনাট্য এতোটাই দূর্বল ছিলো যে, দর্শকরা গল্পের সাথে আত্মস্থ হতে পারেনি। ফ্যাশন জগতের গ্ল্যামার দেখে আকৃষ্ট হয়নি দর্শকমহল। উল্টো অমিতাভ বচ্চনকে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিলো এমন একটি ছবি করার জন্য।

শোনা যায় ছবির সমস্ত খরচ খরচা মেটাতে গাঁটের কড়ি খরচা করেও বাড়তি ১৮ কোটি টাকা ধার করতে হয়েছিলো নির্মাতাদের। যেখানে সর্বসাকুল্যে ছবির আয় ছিলো মাত্র ১.২০ কোটি টাকা। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, এই ঋণ মেটাতে বাড়ির দামি আসবাবপত্রও নাকি বিক্রি করতে হয়েছিলো জ্যাকি শ্রফকে।

এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘আমরা নতুন কিছু করার চেষ্টা করেছিলাম কিন্তু সবকিছু ভেস্তে গেছে। মানুষের ঋণ শোধ করার জন্য প্রচুর কাজ করেছি। তবে এটা জরুরী নয় যে সবকিছু সবসময় আপনার জন্য ভাল হবে। প্রত্যেকের জীবনেই উত্থান-পতন থাকে, তাই বলে আদর্শ থেকে সরে যাওয়া উচিত না।’

কিন্তু এতো খরচ করেও ছবিটি কেন এভাবে ফ্লপ হলো? কারণ খুঁজতে গেলে সবার প্রথমেই যে বিষয়টা উঠে আসে তা হলো কাইজার গুস্তাদের ভুল সিদ্ধান্ত। তিনি বিদেশের মাটিতেই বড়ো উঠেছেন। তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই তিনি ভারতীয়দের পছন্দ অপছন্দের বিষয়ে কিছুই জানতেন না। আর না তিনি জানার কোনো চেষ্টা করেছিলেন। ছবির চিত্রনাট্য থেকে অভিনয় কোনোকিছুই ভারতীয় বাতাবরণের জন্য অনুকূল ছিল না।

Related Articles

Back to top button