বিনোদনসেরা খবর

‘বিয়ের আগে মা হলে মানুষ বাঁকা চোখে দেখে’, মানুষের মনোভাবের উপর প্রশ্ন তুললেন দেবাদৃতা

টেলিভিশনের বেশ খ্যাতনামা নাম হল অভিনেত্রী হলেন দেবাদৃতা বসু (Debadrita Basu)। ইতিমধ্যে টেলি দুনিয়ায় কাটিয়ে ফেলেছেন বেশ কয়েকটি বছর। কাজ করেছেন একাধিক ধারাবাহিকে। এই যেমন বর্তমানে তাকে দেখা যাচ্ছে সান বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘আলোর ঠিকানা’ -তে। বেশ চুটিয়ে অভিনয় করছেন তিনি।

জানিয়ে রাখি, এই ধারাবাহিকের আগে অভিনেত্রীকে দেখা গিয়েছিল স্টার জলসার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘শ্রীকৃষ্ণ ভক্ত মীরা’-তে। সনাতনীদের আরাধ্য দেবতা শ্রী কৃষ্ণের একনিষ্ঠ ভক্ত মীরা বাঈয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। এই ধারাবাহিকে তার অভিনয় ব্যাপক সাড়া ফেলেছিল দর্শকমহলে। তবে এরপর আর তাকে ছোটপর্দায় দেখা যায়নি‌। দীর্ঘ ন টা মাস ইন্ডাস্ট্রি থেকে দূরে ছিলেন তিনি।

তবে অবশেষে বিরতি কাটিয়ে আবার পর্দায় এসেছেন অভিনেত্রী। তবে টেলিভিশনের প্রথম সারির চ্যানেলের বদলে তাকে দেখা যাচ্ছে সান বাংলায় সম্প্রচারিত ধারাবাহিক ‘আলোর ঠিকানা’-তে। তবে জানেন কি এই জনপ্রিয় অভিনেত্রীর গোটা পরিবারই যুক্ত রয়েছে ইন্ডাস্ট্রির সাথে। সূত্রের খবর, টেলিভিশনে আসার আগে নাটকের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন দেবাদৃতা।‌ এরপর সুযোগ আসে জি বাংলার জয়ী ধারাবাহিকে কাজ করার।

সেই যে শুরু হয় তারপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি দেবাদৃতাকে। একটার পর একটা ধারাবাহিকে দূর্দান্ত অভিনয় করে হয়ে উঠেছেন ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম চর্চিত ব্যক্তিত্ব। তাই তার কোনো বক্তব্য নিয়ে যে আলোড়ন হবেই এটা খুবই স্বাভাবিক। সম্প্রতি অভিনেত্রী এমনই এক মন্তব্যকে ঘিরে ব্যাপক চর্চা শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এক জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল টলি ফোকাস কলকাতার সাথে এক কথোপকথনে বলেছিলেন অভিনেত্রী। সেখানেই কথা প্রসঙ্গে উঠে আসে বিয়ের আগে মা হওয়ার বিষয়টি। এই বিষয়ে তাকে জিজ্ঞেস করা হলে দেবাদৃতা জানান, বিয়ে নিয়ে তার বেজায় ভয়। যদি বিয়ের পর তা না টেকে, যদি ডিভোর্স হয়ে যায়? অভিনেত্রীর মতে আজকের দিনে দাঁড়িয়েও ডিভোর্স বিষয়টিকে সোজা নজরে দেখতে পারেনা আমাদের সমাজ।

আর যদি বিয়ের আগে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে যায় তাহলে তো কোন কথাই নেই! সমাজ তাকে কটু কথা শোনাতে কোনো অবসরই ছাড়েনা। যদিও এই বিষয়ে দেবাদৃতার মতে, কেউ যদি স্বেচ্ছায় বিয়ের আগেই মা হতে চায় তাহলে তা সে করতেই পারে। ২০২২ সালে এসে মানুষের এইসব ধারণা বর্জন করা উচিত বলেই মনে করেন তিনি। অভিনেত্রীর এই কথার পর থেকেই চর্চা শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

Related Articles

Back to top button