অন্যান্যসেরা খবর

পুরুষদের কোন কোন অভ্যাস দেখে আকৃষ্ট হন নারীরা? চাণক্য নীতিতে দেওয়া আছে সম্পূর্ণ তথ্য, পড়ে নিতে পারেন আপনিও

প্রতিটা মানুষের স্বভাব আলাদা আলাদা, আর হওয়াটাই স্বাভাবিক। তবে লিঙ্গভেদেও কিছু পছন্দ অপছন্দ এবং স্বভাবের পার্থক্য থাকে মনুষ্য সমাজে। নারী পুরুষ একে অপরের পরিপূরক এই কথা যেমন সত্য, তেমনই সত্য হল এদের ভিন্ন স্বভাব। আর মহিলা মহলে তো এই নিয়ে আলোচনা চলেই থাকে। বিশেষ করে, ছেলেদের কোন কোন অভ্যাসে তারা আকৃষ্ট হন তা নিয়ে চর্চা বিস্তর।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই বিষয়ে চাণক্য কিছু কথা বলেছিলেন। চাণক্য-নীতি অনুসারে, পুরুষদের মধ্যে কিছু অভ্যাস বা গুণ আছে, যা মহিলাদের সবচেয়ে বেশি আকৃষ্ট করে। এগুলিকে মহিলাদের দূর্বলতা বললেও ভুল হবেনা। তাহলে এক নজরে দেখে নিন কী সেই নীতি গুলি এবং আপনার মধ্যেও কি এমন কোনো দূর্বলতা রয়েছে?

সততা : সততা বিশ্বাস অর্জনের মুল চাবিকাঠি। আপনি যদি সম্পর্ক নিয়ে সৎ হন তাহলে নারীরা সহজেই আপনার প্রতি আকৃষ্ট হবেন। বান্ধবী বা প্রেমিকার কাছে নিজের অনুভূতি নিয়ে স্পষ্ট স্বীকারোক্তি করুন, প্রেমিকার কাছে সম্মান পাবেন।

ভাল আচরণ : আপনি কোন পরিস্থিতিতে কেমন আচরণ করছেন এটি বড়োই গুরুত্বপূর্ণ। চাণক্যের মত অনুসারে, মেয়েরা নিজের সঙ্গীর সবকিছুই লক্ষ্য করে থাকে। উদাহরণস্বরূপ, আপনি হয়তো রাস্তায় কারো সাথে অযথাই বাজে ব্যবহার করে বসলেন। এই আচরণ কিন্তু আপনার প্রেমিকার মন ক্ষুণ্ণ করতে পারে।

ভাল শ্রোতা : কমবেশি সব মেয়েরাই চায় তার সঙ্গী তার কথা মন দিয়ে শুনুক। অনেক সময় দেখা যায় যে, প্রেমিকা হয়তো কিছু বলছে কিন্তু প্রেমিক তাতে মনোযোগ না দিয়ে হুঁ হাঁ করে অন্য কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। মেয়েরা এই জিনিসটি একেবারেই পছন্দ করেনা।

আত্মসম্মানের যত্ন : প্রায় সব মেয়েই চায় যে, তার প্রেমিক বা স্বামী অন্য নারীর সম্মানের খেয়াল রাখুক। বিনা কারণে যেন কাউকে কষ্ট না দিয়ে বসে। আর যে পুরুষ অন্য নারীর সম্মান করেন, তারা খুব সহজেই জায়গা করে নেন নারী হৃদয়ে।

Related Articles

Back to top button