Papiya Paul

প্রতীক্ষা নয়, বাড়ির যোগ্য বউ শিমুল, প্রশংসা শ্বাশুড়ি মায়ের, ফাঁস দুর্দান্ত আগাম পর্ব

নিউজশর্ট ডেস্কঃ বাংলা বিনোদন জগতে বিভিন্ন চ্যানেলগুলোতে বিভিন্ন ধারাবাহিক সম্প্রচারিত হয়। তবে এর মধ্যে সবথেকে চর্চিত ধারাবাহিক জি বাংলার(Zee Bangla) ‘কার কাছে কই মনের কথা'(Kar Kache Koi Moner Kotha)। এই ধারাবাহিকে একজন গৃহবধূ তার শশুরবাড়িতে এসে কি কি সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় সেই বাস্তব চিত্রটাকে তুলে ধরা হয়েছে।

   

এই ধারাবাহিক যারা নিয়মিত দেখেন তারা জানেন, গত পর্বে দেখানো হয়েছে, শিমুল তার শাশুড়ি মাকে ঘুরতে যাওয়ার জন্য টাকা দিতে গেলে সেই টাকা ছুড়ে ফেলে দেন মধুবালা। শিমুলকে বলে যে তার ঘুরতে যাবার ইচ্ছে থাকলেও শিমুলের খারাপ কাজের টাকা সে নেবে না। শিমুলের শাশুড়ি মনে করছেন যে সেই টাকাটা শিমুল তার পুরাতন প্রেমিকের কাছ থেকেই এনেছেন। কিন্তু আসল সত্যিটা কিছুতেই শাশুড়িকে বোঝাতে পারে না শিমুল।

অবশেষে যখন কিছুতেই তার শাশুড়ি বুঝতে চান না তখন শিমুল বাধ্য হয়ে বলেন যে এই টাকাটা তার বাবার রোজগারের তৈরি গয়না বন্দক দিয়ে সে নিয়ে এসেছে। এই কথা শুনে অবাক হয়ে যান শিমুলের শ্বাশুড়ি মা। তিনি মনে মনে ভাবেন নিজের ছেলেরা যেখানে মাকে ঘুরতে যাওয়ার জন্য টাকা দিতে পারল না সেখানে একটা বাইরের মেয়ে নিজের গয়না বন্ধক করে ঘুরতে যাওয়ার টাকা জোগাড় করে দিল! তখন তিনি মুখে কিছু না বললেও শিমুলের এই কাজ থেকে যথেষ্ট অবাক হয়েছেন।

এরপর শাশুড়ি মাকে তাড়াতাড়ি খাইয়ে তার জামা কাপড় জিনিসপত্র সমস্ত গুছিয়ে দিয়েছে শিমুল। কিন্তু তাদের মাকে ঘুরতে পাঠানোর জন্য একটুও খুশি হয়নি পরাগ এবং পলাশ। একটাই চিন্তা তাদের মা এতগুলো টাকা কোথা থেকে পেল? নিজের মাকে  একই প্রশ্ন করে যায় দুজনে। ওদিকে এই গোছগাছ করে দেওয়ার দায়িত্ব ছিল প্রতীক্ষার, কিন্তু অফিসে মিটিং থাকায় তার লেট হয়ে যায়।

তাই প্রতীক্ষা না আসায় শিমুল সবটা করে দিয়েছে দেখে মনে মনে রাগ হয় প্রতীক্ষার। দুজনের মধ্যে কিছুক্ষণ বাকবিতন্ডা চলে। শিমুল তো বাড়ির বউ তার অধিকার সে এইসব কাজ করতেই পারে, এই কথাটি সরাসরি প্রতীক্ষার সামনে বুঝিয়ে দেয় শিমুল। আগামী পর্বে হয়তো শাশুড়িও শিমুলের নামে প্রশংসা করবেন। শিমুলের প্রতি কিছুটা হলেও মন গলবে শ্বাশুড়ি মায়ের। তবে সবটা জানার জন্যই আগামী পর্বগুলো দেখতে হবে দর্শকদের।