অন্যান্যসেরা খবর

নোংরা আবর্জনা ভেবে ফেলে না দিয়ে বাড়িতে সংরক্ষণ করুন গোবর, এই উপায়ে আপনিও হতে পারেন লাখপতি


গোবর শুনলেই কমবেশি প্রায় সকলেরই কেমন একটা গা ঘিনঘিন করে ওঠে কিন্তু যদি এই গোবরেরই উপকারিতা শোনেন তাহলে আপনিই দুহাতে তুলে গোবর সংরক্ষণ করতে শুরু করবেন। শুধু তাই নয় এইমুহুর্তে সমস্ত দেশ থেকে গোবর সংগ্রহ করতে শুরু করেছে ন্যাশনাল ডেইরি ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের সম্পূর্ণ মালিকানাধীন একটি সহযোগী সংস্থা NDDB। গোবর যে ঠিক কতটা মূল্যবান আজ এই পোস্টে সেটাই জানাবো আপনাদের।

জৈব সার : এইমুহুর্তে বিশ্বের প্রতিটি দেশই জৈব কৃষিকাজে মনোযোগ দিয়েছে। ফসলে কেমিক্যালের ক্ষতি এড়াতে ঝুঁকছে জৈব কৃষির উপর। এমতাবস্থায় NDDB সয়েল লিমিটেড গোবর থেকে তৈরি করছে বায়োগ্যাস। আর এখান থেকে উৎপাদিত হচ্ছে বিদ্যুৎ। শুধু তাই নয়, বিদ্যুৎ ছাড়াও আর কী কী উপায়ে গোবরকে ব্যবহার করা যেতে পারে তার উপায় খুঁজছে সংস্থাটি।

কীভাবে গোবর হয়ে উঠছে আয়ের উৎস : কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পুরুষোত্তম রুপালার থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী এইমুহুর্তে বারাণসীতে যে ডেয়ারি রয়েছে তার জন্য প্রয়োজনীয় শক্তি উৎপাদন করতে ব্যবহার করা হচ্ছে গোবর। দুগ্ধজাত খাবার তৈরিতে যে শক্তির প্রয়োজন হয় কয়লার পরিবর্তে তা জোগান দিচ্ছে গোবর। তিনি জানান, গোবরকে সঠিকভাবে ব্যবহার করলে এ এক পরিবেশবান্ধব শক্তির উৎস হয়ে উঠতে পারে।

গোবর বিক্রি করেই হতে পারে বাড়তি আয় : মন্ত্রী জানান, গরু আমাদের জীবনের অপরিহার্য অংশ। দুধ এবং দুগ্ধজাত পণ্যের চাহিদা দিনদিন বেড়েই চলেছে। এমতাবস্থায় কৃষক এবং বিভিন্ন গোশালার মালিকরা এবার থেকে গোবর বিক্রি করে বাড়তি আয় করতে পারেন। এইমুহুর্তে বহু বেসরকারি সংস্থাই এই কাজে আগ্রহ দেখাচ্ছে।

স্লারি ভিত্তিক কম্পোস্ট তৈরির কাজ : স্লারি ভিত্তিক সারে রাসায়নিক সারের পরিবর্তে জৈব সারের ব্যবহারের চিন্তাভাবনা চলছে। যার ফলে কমবে বিদেশি সালের চাহিদা। এইমুহুর্তে দেশের বহু গবেষনাকেন্দ্রে এই নিয়ে পরীক্ষা চলছে।

কেন্দ্রীয় সরকার কী উদ্যোগ নিয়েছে : জানা গেছে এবার বাজারজাত করা হবে গোবর থেকে তৈরি পণ্য সামগ্রী। এর ফলে দেশের গ্রামগুলি থেকেও রাজস্ব উৎপাদনের একটি উপায় হবে। সম্প্রতি এমনটাই জানিয়েছেন NDDB সভাপতি মিনেশ শাহ। পাশাপাশি এই উদ্যোগকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সরকারের তরফ থেকেও ভালো রকম বিনিয়োগ করা হবে বলে জানা যাচ্ছে।

Related Articles

Back to top button