বিনোদনসেরা খবর

উত্তম কুমারের পর বাংলা ছবিকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন সুখেন দাস, তবুও কোনোদিন মেলেনি যোগ্য সম্মান! আক্ষেপ কন্যা পিয়ার

একসময়ের বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা ছিলেন সুখেন দাস(Sukhen Das)। তাকে ট্রাজিক অভিনেতা বলা হত। দুঃখের দৃশ্যে তার মতো অভিনয় অন্তত তখনকার সময়ে কেউ করতে পারবেন না। অভিনেতার পাশাপাশি তিনি একজন নামি পরিচালক ছিলেন। অসংখ্য সুপারহিট সিনেমা তিনি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন। অসাধারণ গল্পের সাথেই তার সুপারহিট সিনেমার প্রধান ইউএসপি ছিল তার দাদা অজয় দাসের দুর্দান্ত কম্পোজিশনের গান।

সেসময় টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা-অভিনেত্রী উত্তম কুমার, সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় তাঁর ছবিতে কাজ করেছেন। তবে এত প্রতিভাবান একজন পরিচালককে আজকের বহু মানুষই হয়তো চেনেন না। ইন্ডাস্ট্রি তাকে কখনোই যোগ্য সম্মান দেয়নি। শোনা গিয়েছিল, সত্যজিৎ রায় একসময় সুখেন দাসের ছবির প্রশংসা করেছিলেন। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ সরকার কিংবা ইন্ডাস্ট্রির কেউই তাকে যোগ্য সম্মান জানাননি, এটা নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন তার কন্যা পিয়া সেনগুপ্ত।

সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, বাবা বলেছিলেন যে তার ছোট মেয়েকে কোনদিনই অভিনয়ে আনবেন না। কিন্তু বড় মেয়েকে মাত্র ১৩ বছর বয়সে ক্যান্সারে হারিয়ে সুখেন দাস মনে করেছিলেন ছোট মেয়ে পিয়াকে অভিনয় আনবেন। কিন্তু এই পিয়াও এখন অভিনয় থেকে দূরে সরে এসেছেন।

প্রিয়া জানিয়েছেন, উত্তম কুমারের পর সুখেন দাসের ইন্ডাস্ট্রিকে বাঁচিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু আজ তাঁকে কেউ মনে রাখেনি। সরকারি সম্মান তো দূর, বেসরকারি সম্মান ও কখনও তিনি পাননি। অভিনেত্রীর অভিযোগ এবার অন্তত তার বাবাকে যোগ্য সম্মান দেওয়া হোক। উল্লেখ্য, সুনয়নী, সিংহদুয়ার, মান অভিমান, সংকল্প, প্রতিশোধ, জীবন-মরণ এই ছবিগুলির পরিচালনা করেছেন তিনি।

Related Articles

Back to top button