বিনোদনসেরা খবর

‘থ্রী ইডিয়টস’-র ‘চতুর’কে মনে আছে? আজকের ‘সাইলেন্সার’র গ্ল্যামার সহজেই টেক্কা দেবে বলিউড হিরোদের

আমির খানের থ্রি ইডিয়টসের কথা মনে আছে? এই ছবির প্রতিটি চরিত্রই বিশেষ। শুধু বড়োরাই নয়, শিশুরাও এই দারুন পছন্দ করে এই ছবিটি। নয় থেকে নব্বই সবার হৃদয়ে এই ছবির ক্রেজ এখনো অটুট রয়েছে। ‘থ্রী ইডিয়টস’-র প্রতিটি চরিত্র মানুষের হৃদয়ে একটি বিশেষ জায়গায় আজও বিরজামান। এরমধ্যে যে চরিত্রটি দর্শকের মনে ভালোভাবেই থেকে গিয়েছে, সেটি হল ‘দ্য সাইলেন্সর’ বা চতরুর রামালিঙ্গম।

চতুরের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন ওমি বৈদ্য। কলেজের অনুষ্ঠানে মঞ্চে চতুরের ভাষণ আজও মনে পড়লেই হাসির উদ্রেক ঘটায়। ২০০৯ সালে ‘থ্রী ইডিয়টস’ মুক্তির পর দীর্ঘ ১৩ টা বছর পেরিয়ে গেছে। এহেন চতুর ওরফে ওমি এখন কোথায় আছেন? কেমনই বা দিন কাটছে তার? এই ১৩ বছরে কতটা বদলেছে অভিনেতার চেহারা?

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই ছবির পর আমূল পরিবর্তন আসে ওমির জীবনে। এরপর একাধিক ছবিতে কাজ করেছেন তিনি। একাধিকবার দেখিয়েছেন নিজের বলিষ্ঠ অভিনয়ের ঝলক। পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও ভালোরকম অ্যাক্টিভ থাকতে দেখা যায় অভিনেতাকে। তবে আজকের ওমিকে দেখলে ২০০৯ এর চতুরের সঙ্গে মেলানো খানিকটা কঠিনই বটে‌।

এই যেমন কিছুদিন আগেই ওমি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি পোস্ট করেন যা দেখে ভক্তরা রীতিমত অবাক। ছবিতে দেখা যাচ্ছে বেশ স্টাইলিশ লুকে একটি কফি শপের সামনে বসে রয়েছেন ওমি। পরনে মাল্টি কালার্ড শার্ট এবং চোখে কালো সানগ্লাস পরিহিত ওমির উপর থেকে নজর ফেরানো দায়।

ওমির এই ছবি ভাইরাল হতেই কমেন্ট বক্সে উপচে পড়েছে অনুরাগীদের ভিড়। কেউ লিখেছেন, ‘হে মহাপুরুষ, কোথায় ছিলেন’? অন্য একজন ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘আপনি খুব আন্ডাররেটেড স্যার’। এই ছবি শেয়ার করার পর থেকেই আবারও লাইম লাইটে ওমি বৈদ্য।

জানিয়ে রাখি, থ্রি ইডিয়টস ছবির সৌজন্যে বিখ্যাত হওয়া ওমি আমেরিকায় জন্মগ্রহণ করেন। এখানেই তিনি বড় হয়েছেন। তিনি নিউইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চলচ্চিত্র নির্মাণে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর আমেরিকায় কিছু ছোটোখাটো অভিনয় করার পর ভারতে চলে আসেন এবং এখানেই বলিউডে পা রাখেন।

Related Articles

Back to top button