বিনোদনসেরা খবর

অহংকারীর পর জোচ্চুরির তকমা! টাকা নিয়ে নাকি শাড়ি দেন না, ‘রান্নাঘরের রানী’ সুদীপার কপালে এবার জুটল নতুন অপবাদ

বর্তমানে বিতর্কের আরেক নাম যেন সুদীপা চ্যাটার্জী। একটা বিতর্ক শেষ হতে না হতেই আরেকটা বিতর্ক শুরু হয়ে যায়। দিনকয়েক আগেই তার সুইগি ডেলিভারি বয়দের নিয়ে অপমানজনক পোস্টের জেরে প্রথমে অরিত্র দত্ত বনিকের সঙ্গে বাকযুদ্ধ এবং তারপর শ্রীলেখা মিত্রর সাথে নোংরা কাদা ছোড়াছুড়ির রেশ শেষ হতে না হতেই এবার সামনে এলো আর্থিক কেলেঙ্কারির খবর।

হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন, সুদীপা চ্যাটার্জী যিনি হামেশাই নিজের স্ট্যাটাস এবং টাকা পয়সার বড়াই করে থাকেন তিনিই নাকি একজনের ২২ হাজার টাকা নিয়ে তার প্রোডাক্ট দেননি। শুনতে অবিশ্বাস্য লাগলেও সম্প্রতি এমনই এক কথা সামনে এনেছেন এক মহিলা।

একথা তো কমবেশি সকলেই জানেন যে, জি বাংলার জনপ্রিয় শো ‘রান্নাঘর’-এর সঞ্চালিকা হওয়ার পাশাপাশি শাড়ি এবং গয়নার ব্যবসা রয়েছে তার। এছাড়া তার স্বামী অগ্নিদেব চ্যাটার্জীও একজন নামকরা ব্যবসায়ী। সেই তিনিই হঠাৎ এমন কাজ করলেন কেন? চলুন জেনে নিই বিস্তারিত।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই জনপ্রিয় সঞ্চালিকা প্রায়শই ফেসবুক লাইভে এসে নিজের প্রোডাক্ট বিক্রি করে থাকেন। এমনই এক লাইভে এসে নিজের প্রোডাক্টের ডালি সাজিয়ে বসেছিলেন তিনি। সেখানে হঠাৎই এক মহিলার মন্তব্য ভেসে আসে যেখানে দাবি করা হয়েছে যে, তিনি মে মাস থেকে ২২০০০ টাকা পে করে রেখেছেন কিন্তু এখনও পর্যন্ত না প্রোডাক্ট পেয়েছেন আর না পেয়েছেন রিফান্ড। এমনকি অজস্র মেসেজ করলেও কোনো রিপ্লাই পাননি তিনি।

যদিও নিউজ শর্টের তরফ থেকে এই স্ক্রিন শটের সত্যতা বিচার করা হয়নি তবে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এমনই একটি স্ক্রিন শট ক্রমাগত ভাইরাল হয়ে চলেছে। যাতে দেখা যাচ্ছে যে, লাইভ চলাকালীনই অনিন্দিতা মিত্র রয় নামক এক মহিলা লিখেছেন, “সুদীপা– অনিন্দিতা মিত্র বলছি। আমার অর্ডার মে তে প্লেস করেছি….. এখনও পাইনি। রিফান্ডের জন্য অনেক মেসেজ করেছি…নো রেসপন্স। আমি ২২০০০ টাকা রিফান্ড পাবো কিন্তু আপনি কোনো মেসেজের রেসপন্স করেননি।”

ভাইরাল এই স্ক্রিন শটটি মানুষের সামনে আসতেই খানিকটা হতভম্ব হয়ে পড়েছে সবাই। এতো বড়ো একজন তারকা এরকম করতে পারে বলে ভাবতেই পারছেনা কেউ। যদিও এখনও পর্যন্ত এই স্ক্রিন শটের পরিপ্রেক্ষিতে কোনোরকম বক্তব্য আসেনি সুদীপা চ্যাটার্জীর থেকে। তবে ইতিমধ্যেই নেটিজেনদের মধ্যে এই বিষয়টি নিয়ে চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে। ভাইরাল কমেন্টের রিপ্লাই তে একজন লিখেছেন, ‘শেষ, গেলো সব টাকা গুলো আপনার। আর হয়তো পাবেননা, এর আগেও এরকম হয়েছে। সেই জন্যই বললাম’।

 

Related Articles

Back to top button