Basabdatta Chatterjee shares working experience in Kar Kache Koi Moner Kotha in an Interview

Partha

‘অভিজ্ঞদের উপর চাপানো যায় না, নতুনেরা কম টাকায় কাজ করে!’ টেলি ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে অকপট বাসবদত্তা

নিউজশর্ট ডেস্কঃ বাংলা টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী বাসবদত্তা চট্টোপাধ্যায় (Basabdatta Chatterjee)। দেখতে দেখতে প্রায় ১৫ বছর কাটিয়ে ফেলেছেন অভিনয় জগতে। সময় বদলেছে সাথে বদলেছে ধারাবাহিকের ধরন এমনকি দর্শকদের পছন্দও। তবে নিজের অভিনয়ের দক্ষতা দিয়ে প্রতিবারই সকলের মন দিতে নিয়েছেন তিনি।

   

অভিনয়ে আসার শুরুটা ছিল ঋতুপর্ণ ঘোষের গানের ওপারে এর দামিনী হয়ে। এরপর বয়েই গেল, মন নিয়ে কাছাকাছি, তখন কুয়াশা ছিল এর মত একাধিক সিরিয়াল থেকে শুরু করে সিনেমায় কাজ করতে দেখা গিয়েছে তাকে। কিছুদিন আগেও তাকে দেখা যেত জি বাংলার কার কাছে কই মনের কথা ধারাবাহিককে। বর্তমানে সেই মেগার শুটিং শেষ। তবে এরই মধ্যে সঞ্চালিকা হিসাবে কামব্যাক করেছেন বাসবদত্তা।

আকাশ আঠ চ্যানেলে রান্নার শো রাঁধুনিতে সঞ্চালিকা হিসেবে দেখা যাচ্ছে তাকে। সম্প্রতি হিন্দুস্থান টাইমস বাংলার সাথে সাক্ষাৎকারে নতুন কাজ থেকে শুরু করে দীর্ঘ অ্যাক্টিং ক্যারিয়ারের অভিজ্ঞতা নিয়ে মুখ খুললেন বাসবদত্তা চট্টোপাধ্যায়। শুরুতেই জানালেন তিনি নিজেও রান্না করতে ভালোবাসেন চাইনিজ থেকে বাঙালি রান্না এমনকি স্যান্ডউইচ থেকে চিংড়ি ভাপা, সবই রান্না করতে ও খেতে ভালোবাসেন তিনি।

Basabdatta Chatterjee,Kar Kache Koi Moner Kotha,Bengali Serial,কার কাছে কই মনের কথা,বাসবদত্তা চট্টোপাধ্যায়,বাংলা সিরিয়াল,আকাশ আঠ রাঁধুনি

আরও পড়ুনঃ পুরী ঘুরতে গিয়ে সম্বন্ধ থেকে বিয়ে, কিভাবে মহানায়িকা হলেন সুচিত্রা সেন? রইল অজানা কাহিনী

এরপর ‘কার কাছে কই মনের কথা’ ধারাবাহিকে কাজের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়। তখন তিনি বলেন, অনেকেই চরিত্রটা ভালো লাগেনি, তবে তাঁদের কোনো দশ দেখি না আমি। গল্পটা শুরু হয়েছিল পাঁচটা মেয়ের আলাদা কাহিনী দেখানো হবে বলে। কিন্তু সেটা আর হয়নি, যারা আমার কাজ দেখতে পছন্দ করেন তাদের কাছে এটা আক্ষেপের জায়গা। অনেকেই জিজ্ঞাসা করছেন, কেমন আমি এই চরিত্রটা করলাম!

বর্তমানে ইন্ডাস্ট্রিতে নায়িকার চরিত্রে অল্প বয়সীদের ভিড় নিয়ে প্রশ্ন করা হয় অভিনেত্রীকে। এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, এখন কমবয়সী অভিনেতা অভিনেত্রী নেওয়া হচ্ছে কারণ এঁরা যা বলবে তাই করবে। নতুনেরা মুখের ওপর কিছু বলতে পারবে না। কিন্তু আমরা যারা ১৫ বছর কাজ করছি তাদের উপর সবটা চাপিয়ে দেওয়া যাবে না। তাছাড়া নতুন যারা তাঁরা কম টাকায় কাজ করবে।