Students will get Rs 10000 in Taruner Swapno Scheme by Government of West Bengal

Kakali Chatterjee

ছাত্রছাত্রীদের জন্য দারুন সুখবর! স্মার্টফোন কিনতে ১০,০০০ টাকা দেবে সরকার, দেখুন আবেদন পদ্ধতি

নিউজশর্ট ডেস্কঃ পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দাদের সুবিধার্থে কন্যাশ্রী , রুপশ্রী , লক্ষীর ভাণ্ডার সহ একাধিক প্রকল্প চালু করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM MAMATA Banerjee)। এবার লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় সবুজ আবির উড়তেই আবারও কল্পতরুর ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের পড়ুয়াদের কথা চিন্তা করে এবার নিলেন এক বড় উদ্যোগ। নবান্ন সূত্রে খবর, রাজ্যের পড়ুয়ারা পাবেন ‘তরুণের স্বপ্ন’ প্রকল্প (Taruner Swapno) এর সুবিধা। এই প্রকল্পের দ্বারা পড়ুয়াদের স্মার্ট ফোন কেনার জন্য ১০ হাজার টাকা দেবে রাজ্য সরকার।

তরুণের প্রকল্পের উদ্দেশ্য

   

করোনা অতিমারির সময়ে অনলাইন শিক্ষার গুরুত্ব বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু অনেকেই আর্থিক সঙ্কটের জন্য স্মার্টফোনের অভাবে অনলাইন ক্লাসের সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন নি। এবার সেই পড়ুয়াদের কথা ভেবেই ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন মুখ্যমন্ত্রী। এই প্রকল্পের মূল লক্ষ্য হল পড়ুয়াদের প্রযুক্তিগত সহায়তা প্রদান করে পড়াশোনার জন্য স্মার্টফোন বা ট্যাব কেনার সুযোগ করে দেওয়া। এই উদ্যোগের ফলে পড়ুয়ারা ডিজিটাল শিক্ষা পদ্ধতির সাথে আরো সহজে যুক্ত হতে পারবে এবং তাদের জ্ঞানের ভাণ্ডার আরো সমৃদ্ধ হবে বলেই দাবি রাজ্য সরকারের।

কারা এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন?

এই প্রকল্পর সুবিধা নেওয়ার জন্য পড়ুয়াকে রাজ্যের বাসিন্দা এবং পশ্চিমবঙ্গ সরকার স্বীকৃত কোনও স্কুল অথবা মাদ্রাসার দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র বা ছাত্রী হতে হবে। এছাড়াও সেই পড়ুয়ার পারিবারিক আয় ২ লাখ টাকার নীচে হতে হবে। এর পাশাপাশি এই টাকা দিয়ে শুধুমাত্র স্মার্ট ফোন বা ট্যাব কেনা যাবে। ওই টাকা দিয়ে মোবাইল কিনে অবশ্যই সেই রসিদ বিদ্যালয়ে জমা করতে হবে।

কিভাবে আবেদন করবেন?

এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করার প্রক্রিয়া খুবই সহজ:

  • স্টুডেন্ট ডি সি এফ ফর্ম পূরণ করুন: পড়ুয়াদের স্কুল থেকে এই ফর্মটি সংগ্রহ করতে হবে। ফর্মে নাম, বাবার নাম, স্কুলের নাম, বয়স, আধার কার্ডের নম্বর, রক্তের গ্রুপ, শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রমাণ, অভিভাবকদের নাম ও ঠিকানা, ঠিকানা প্রমাণ এবং ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত তথ্য পূরণ করতে হবে।
  • ফর্ম জমা দিন: পূরণ করা ফর্মটি স্কুলে জমা দিতে হবে। সঙ্গে এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি সংযুক্ত করতে হবে।
  • তথ্য যাচাই: শিক্ষকেরা ফর্মে থাকা তথ্য অনলাইনে আপলোড করবেন এবং যাচাইয়ের পর নির্বাচিত পড়ুয়াদের অ্যাকাউন্টে ১০ হাজার টাকা পাঠানো হবে।

রাজ্যে পড়ুয়াদের শিক্ষায় উন্নতির জন্য তরুণের প্রকল্প ছাড়াও একাধিক স্কলারশিপের চালু করেছে রাজ্য সরকার। স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ, ওএসআইএস স্কলারশিপ এবং নবান্ন স্কলারশিপ। এই বৃত্তিগুলি আর্থিক সহায়তা প্রদান করে, মেধাবী ছাত্রদের সমর্থন করে এবং যারা আর্থিক সঙ্কটের সম্মুখীন হয় তাদের ক্ষমতায়ন করে।