Mukesh Ambani faces Crisis amid Son Anant Amabani's Marriage Celebration

Partha

ছেলের বিয়ের আগেই খারাপ খবর! চরম বিপদে মুকেশ আম্বানি, কেন জানেন?

নিউজশর্ট ডেস্কঃ ভারতের সবচয়ে ধনী ব্যক্তিত্বদের মধ্যে অন্যতম মুকেশ আম্বানি (Mukesh Amabani)। বর্তমানে আম্বানি পরিবার ব্যস্ত ছেলে অনন্ত আম্বানির বিয়ের (Anant Ambani wedding) অনুষ্ঠানে। বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরে একেরপর এক এলাহী আয়োজন হচ্ছে প্রাক বিয়ের অনুষ্ঠানে, এমনকি সদ্য হওয়া সঙ্গীতের অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন মার্কিন মুলুকের পপ তারকা জাস্টিন বিবার। কিন্তু ছেলের বিয়ের মত খুশির উৎসবের মাঝেও খারাপ খবর মুকেশ আম্বানির জন্য!

সংকটে মুকেশ আম্বানি!

   

Reliance Jio এর দৌলতে মুকেশ আম্বানি এখন প্রতিটা ঘরে ঘরে পরিচিত। একসময় ফ্রি 4G গিয়ে দেশের টেলিকম ইন্ডাস্ট্রিতে তোলপাড় করেছিলেন আম্বানি। এরপর প্রতিবছর হু হু করে বেড়েছে গ্রাহকের সংখ্যা। দেখতে দেখতে দেশের বাকি টেলিকম কোম্পানিদের চ্যালেঞ্জ করে বিপুল গ্রাহকদের আকর্ষণ করতে পেরেছে রিলায়েন্স জিও। কিন্তু ভোট মিটতেই সমস্ত রিচার্জের দাম বেড়ে গিয়েছে। তাও আবার প্রায় ২৫% পর্যন্ত, যেটা মোটেই ভালোভাবে নিচ্ছে না দেশের আমজনতা।

একটা সময় ছিল যখন রিচার্জ না করলেও মোবাইল নাম্বার দিব্যি চালু থাকত, এসএমএস আসত। কিন্তু বর্তমানে রিচার্জ না করলেই অকেজো হয়ে যায় নাম্বার। তাই প্রতিমাসে রিচার্জ করাতেই হবে, তাতে সেটা ব্যবহার হোক বা না হোক, নাম্বার চালু রাখতে হলে রিচার্জ বাধ্যতামূলক। অথচ সেই নূন্যতম রিচার্জই ১৫৫ টাকা থেকে বেড়ে হয়ে দাঁড়িয়েছে ১৮৯ টাকা। আর যদি ভালোমত ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চান তাহলে নূন্যতম ২৪৯ টাকা গুনতে হবে ২৮ দিনের জন্য।

Mukesh Ambani Sad

আরও পড়ুনঃ Airtel, Jio কে জোর কা ঝাটকা! সস্তায় ৪৫ দিনের আনলিমিটেড কলিং, ডেটার রিচার্জ লঞ্চ করল BSNL

বয়কট জিও দাবিতে সরব নেটিজেনরা!

আচমকা এই মূল্যবৃদ্ধিকে ভালো চোখে দেখেনি সাধারণ মানুষ। সোশ্যাল মিডিয়াতে যেমন নিন্দার ঝড় বয়েছে তেমনি ট্রেনে, বাসে চায়ের দোকানে সর্বত্র আলোচনা হচ্ছে এই নিয়েই। এমতাবস্থায় শনিবার টুইটারে ‘বয়কট Jio’ ট্রেন্ডিং দেখা গিয়েছে। এমনকি একটি ছবিও ভাইরাল হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে বেশ কিছু লোকে মোবাইল রিচার্জের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিএসএনএল এ নাম্বার পোর্ট করার কথা প্রচার করছেন।

আসলে Reliance Jio, Airtel ও Vi যেখানে নিজেদের প্ল্যানের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে সেখানে BSNL এর দাম এখনও যথেষ্ট কম রয়েছে। তবে রাষ্ট্রায়াত্ত সংস্থা হওয়ার পরেও বিএসএনএল এর 5G তো দূর 4G পরিষেবাও ঠিক মত মেলেনা। এই নিয়ে অভিযোগ থাকলেও সস্তায় মোবাইল পরিষেবা পেতে হলে বিএসএনএলই একমার অপশন বলে মনে করছেন অনেকেই।

তাছাড়া নেটিজেনদের একাংশের দাবি, সবাই মিলে যদি সিম কার্ড পোর্টিং করে বিএসএনএল এ চলে যায় তাহলেই সংস্থার হাতে টাকা আসবে। এরপর কোম্পানি গ্রাহকদের আরও উন্নত পরিষেবা দিতে পারবে। আগামী দিনে 4G ও 5G পরিষেবাও চালু হবে। তবে সত্যিই যদি এটা হয় তাহলে রিলায়েন্স জিও তথা মুকেশ আম্বানির জন্য সেটা বড় ক্ষতি হবে। এখন আগামী দিনে কি হয় সেটাই দেখার।