বিনোদনসেরা খবর

ক্যাটরিনা থেকে করিনা, রাজনীতির এই ৭ জনপ্রিয় নারী চরিত্রের জন্য দর্শকদের পছন্দ বলিউডের ৭ অভিনেত্রী

স্বাধীন ভারতের ক্ষমতায়নে নারীদের অবদান অনস্বীকার্য। শুধু দেশ স্বাধীন করতেই নয়, স্বাধীন ভারতের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও নতুন দিকনির্দেশনা দেওয়ার ক্ষেত্রে, রাজনীতিতে নারীরা অনেক নাম কুড়িয়েছেন। আমাদের একাধিক শক্তিশালী নারী নেত্রী রয়েছে, যারা সময়মত দেশ ও নারীর অধিকারের আওয়াজ তুলেছেন এবং জাতিকে নতুন দিশা দেখিয়েছে। এর মধ্যে বেশ কিছু নেত্রীর ওপর বায়োপিকও তৈরি করা হয়েছে। তবে এই বায়োপিক তৈরিতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো মূখ্য চরিত্রে কে অভিনয় করছেন? দর্শকদের মতানুসারে আমরা এমন কিছু নায়িকার তালিকা এনেছি যারা এই চরিত্রগুলির জন্য একেবারে পিকচার পারফেক্ট।

1. সোনিয়া গান্ধী- ক্যাটরিনা কাইফ : সোনিয়া গান্ধী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের বর্তমান সভাপতি। দর্শকদের মতানুসারে ক্যাটরিনা কাইফ তার বায়োপিকের জন্য একেবারে পারফেক্ট।

 

 

2. শীলা দীক্ষিত- শেফালী শাহ : দেশের রাজধানী দিল্লির ভাগ্য বদলে দেওয়ার পেছনে প্রয়াত নেত্রী শীলা দীক্ষিত জির বিরাট হাত রয়েছে। তিনি ১৯৯৮-২০১৩ সাল পর্যন্ত দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। শেফালি শাহ তার বায়োপিকের জন্য সেরা হতে পারেন।

 

 

3. সুষমা স্বরাজ- সোনাক্ষী সিনহা : ইন্দিরা গান্ধীর পর সুষমা স্বরাজ ছিলেন দ্বিতীয় মহিলা যিনি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হন। তিনি বিজেপির একজন শক্তিশালী নেত্রী ছিলেন। সোনাক্ষী সিনহাকে তার বায়োপিকে কাস্ট করা সঠিক প্রমাণিত হতে পারে।

 

 

5. মায়াবতী- ভূমি পেডনেকর :মায়াবতী, যিনি ৪ বার উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। তিনি বহুজন সমাজবাদী পার্টির জাতীয় সভাপতি। ভূমি পেডনেকর তার বায়োপিকে তার ভূমিকা আরও ভালোভাবে পালন করতে পারেন বলে মনে করে অনেকেই।

6. বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়া – কারিনা কাপুর : বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়া ছিলেন রাজস্থানের প্রথম মহিলা মুখ্যমন্ত্রী। কারিনা কাপুর বিজেপির সিনিয়র সদস্য বসুন্ধরা রাজের বায়োপিকের জন্য উপযুক্ত হতে পারেন।

 

7.মানেকা গান্ধী – আনুশকা শর্মা : মানেকা গান্ধী বিজেপির একজন শক্তিশালী নেত্রী। এমপি হওয়ার পাশাপাশি তিনি একজন প্রাণী অধিকার কর্মী, লেখিকা ও পরিবেশবাদীও। প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মানেকার বায়োপিক তৈরি করলে অনুশকাকে ভালো মানাবে বলেই ধারণা।

Related Articles

Back to top button