বিনোদনসেরা খবর

হিন্দি ভারতের রাষ্ট্রভাষা নয়, জোর করে চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে! বিস্ফোরক মন্তব্য সোনু নিগমের

সোনু নিগম(Sonu Nigam), বলিউডের(Bollywood) জনপ্রিয় গায়ক তিনি। তার ভক্তের সংখ্যা কম নয়। তবে মাঝেমধ্যেই যে কোন ইস্যুতে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন এই গায়ক। সম্প্রতি তিনি হিন্দি ভাষা নিয়ে যে তর্ক-বিতর্ক চলছে সেখানে নিজের মতামত প্রকাশ করেছেন। ভারতীয় সংবিধানে কোন ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে উল্লেখ করা হয়নি।

হিন্দি দেশে সব থেকে বেশি মানুষের ভাষা, তাই বলে যারা হিন্দি বলেন না তাদের ওপরও জোর করে ভাষাটা চাপিয়ে দিতে হবে। ভাষা বিতর্ক নিয়ে এমনই মন্তব্য করেছেন গায়ক সোনু নিগম। কিছুদিন আগেই হিন্দি ভারতের রাষ্ট্রভাষা এই নিয়ে তর্ক বিতর্ক শুরু করেছেন অভিনেতা অজয় দেবগন ও কিচ্চা সুদীপ। হিন্দি রাষ্ট্রভাষা কিনা তা নিয়ে বেশ জলঘোলা হয়েছে। আর এবার এই নিয়ে মুখ খুলেছেন সোনু।

তিনি বলেছেন যে আমি যতদূর জানি, ভারতের সংবিধানে হিন্দিকে রাষ্ট্রভাষা হিসাবে উল্লেখ করা হয়নি। আমি এই বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গেও কথা বলেছি। আমাদের দেশে বেশিরভাগ মানুষ হিন্দিতে কথা বলেন, আমি সেটা বুঝি। সেই সঙ্গে আমরা এটা কি জানি যে বিশ্বের সবথেকে পুরনো ভাষা তামিল? এখানে তামিল আর সংষ্কৃতের মধ‍্যে বিতর্ক রয়েছে। তবে সবাই বলে তামিল নাকি সারা বিশ্বের মধ‍্যে সবথেকে পুরনো ভাষা।

তার মনে হচ্ছে যারা হিন্দি ভাষাতে কথা বলেন না তাদের ওপরেও জোর করে এই ভাষাটা চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। গায়কের মতে কে কোন ভাষায় কথা বলবেন সেটা তার নিজেরই ঠিক করা উচিত। সোনু বলেছেন, যে পাঞ্জাবি তিনি পাঞ্জাবিতে কথা বলুক, তামিল ভাষীরা তামিলে কথা বলুক। আবার কেউ যদি ইংরেজিতে কথা বলতে পছন্দ করেন সেটাই কথা বলুক। গায়ক এই মন্তব্যের সঙ্গে এটা উল্লেখ করেছেন যে একবার বিমানযাত্রার সময় সেই বিমানের কর্মচারীরা তার সঙ্গে ইংরেজিতে কথা বললেও তিনি হিন্দিতে উত্তর দিয়েছিলেন।

Related Articles

Back to top button