বিনোদনসেরা খবর

৪৫-এ পা দিলেন যীশু, একসময়ের ‘অপয়া’ অভিনেতা আজ রাজত্ব করছেন টলিউড-বলিউডে, অভিনেতার জীবনের গল্প বেশ বেদনাদায়ক

অভিনয় জগতে পা রাখার সময় ‘অপয়া’ শব্দটি জুটেছিল তার কপালে। বারবার ব্যর্থ হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু আজকে তিনি বলিউড এবং টলিউডের দাপটের সঙ্গে কাজ করে চলেছেন। এখানে কথা হচ্ছে বিশ্বরূপ সেনগুপ্ত যাকে সকলেই যিশু সেনগুপ্ত নামে চেনেন। এই অভিনেতার ক্যারিয়ারের শুরুতে অপয়া তকমা জুটেছিল। তার জীবনের প্রথম কিছু সিনেমা মুখ থুবরে পড়ে। এর ফলে বহু পরিচালক তাকে আর সিনেমায় অভিনয় করাতে চাইতেন না।

তবে এখন টলিউড হোক বা বলিউড প্রথম সারির পরিচালকদের অন্যতম পছন্দের অভিনেতা তিনি। ১৯৭৭ সালে ১৫ ই মার্চ জন্ম হয় তার। অর্থাৎ আজকের দিনে ৪৫ বছরে পা দিলেন অভিনেতা। রামচন্দ্র কলেজ থেকে অর্থনীতিতে স্নাতক ডিগ্রী পাস করেন তিনি। এরপরের কিছুদিন বিজ্ঞাপন সংস্থায় কাজ করেছিলেন। তার বাবা উজ্জল সেনগুপ্ত বাংলা চলচ্চিত্রের অভিনেতা ছিলেন। তাই সিনেমার প্রতি মন ছিল যীশুর। ‘মহাপ্রভু’ নামের একটি টেলিভিশন সিরিয়ালের মাধ্যমে যীশু অভিনয় ক্যারিয়ার শুরু করেন।

এরপর ১৯৯৯ সালে ‘প্রিয়জন’ সিনেমা দিয়ে টলিপাড়ায় কাজ শুরু হয় তার। এই সিনেমাটি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ে। রোমান্টিক, আকশন,কমেডি সব চরিত্র অভিনয় করলেও বক্স অফিসে সব ব্যর্থ হয়। আর তাই বেশ কিছুদিন ভেঙে পড়েছিলেন অভিনেতা। সেই সময় অভিনেতারা টলিউডের সুন্দর ক্যারিয়ার করতে পারলেও তিনি প্রতিষ্ঠিত হতে পারেননি। এজন্য অনেকেই তাকে বলতেন যে তার মধ্যে নাকি নায়ক মেটিরিয়ালটা নেই। এরপর ২০০৮ সালে অভিনেত্রী কোয়েল মল্লিক এর বিপরীতে ‘বর আসবে এখুনি’ সিনেমায় অভিনয় করেন যীশু।

এটাই ছিল তার জীবনের টার্নিং পয়েন্ট। এরপরে ধীরে ধীরে নিজেকে প্রমাণ করার সুযোগ মেলে তার। সিনেমাটি বক্সঅফিসে বেশ ভালো সাফল্য পায়। এরপরেই ঋতুপর্ণ ঘোষের সব চরিত্র কাল্পনিক’ , ‘নৌকাডুবি’, ও ‘আবহমান’ সহ বহু সিনেমায় নিজেকে প্রমাণ করেন তিনি। আর বাকিটা ইতিহাস। এখন শুধু টলিউডে আর তিনি থেমে নেই। বলিউডে একের পর এক ছবিতে কাজ করে চলেছেন তিনি। যীশু প্রমান করে দিয়েছেন নিষ্ঠা ও অধ্যাবসায় ও কাজের প্রতি ভালোবাসা থাকলে সফলতা অবশ্যই আসবে। আর সেটাই করিয়ে দেখেছেন বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা যীশু সেনগুপ্ত। আর আজকে তার জন্মদিনে ‘Newz Short’ এর পক্ষ থেকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

Related Articles

Back to top button