পশ্চিমবঙ্গসেরা খবর

তৈরি হচ্ছে ঘূর্ণাবর্ত! শীঘ্রই বাংলার বিভিন্ন জেলায় আছড়ে পড়বে কালবৈশাখী, চলবে ঝড়বৃষ্টি

বিগত কয়েকদিন ধরে গরমের দাপটে নাজেহাল রাজ্যবাসী। কলকাতা সহ বেশকিছু জেলায় তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির উপরে ছাড়িয়ে গিয়েছে। আর এই গরমের জন্য কয়েকজনের মৃত্যুর খবর সামনে এসেছে। তবে এর মধ্যে খুশির খবর শুনিয়েছ আবহাওয়া দপ্তর। খুব শীঘ্রই কালবৈশাখীর দাপট আসতে চলেছে বাংলায়।ইতিমধ্যেই বেশকিছু জেলায় কালবৈশাখী শুরু হয়ে গিয়েছে।

গতকাল বর্ধমান, বাঁকুড়া, বীরভূম, পুরুলিয়া উত্তর ২৪ পরগনা সহ একাধিক জেলায় বৃষ্টিপাত হয়েছে। আজকেও সন্ধ্যার পর থেকে কলকাতা উত্তর 24 পরগনা সহ বিভিন্ন জেলায় কালবৈশাখীর জন্য বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। এর ফলে কোন কোন জায়গায় মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টিপাত হয়েছে।আবহাওয়া দপ্তর থেকে এটাও জানানো হয়েছে, আগামী ২-৩ দিনের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের কোন জেলাতে তাপপ্রবাহের কোন সম্ভাবনা নেই।

বরং আগামী সপ্তাহে কলকাতা সহ বিভিন্ন জেলায় কালবৈশাখী-এর সম্ভাবনা রয়েছে। আবহাওয়া অফিস এটাও জানিয়েছে, আন্দামান দ্বীপপুঞ্জে ঘূর্ণাবর্ত জমাট বেঁধেছে। যার ফলে মে মাসের ২-৩ তারিখ নাগাদ ৪০-৫০ কিলোমিটার বেগে ঝড় বইতে পারে। এর সাথে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে প্রচন্ড গরমের পর এই বৃষ্টির ফলে স্বস্তি মিলেছে রাজ্যবাসীর।

আবহাওয়া অফিস থেকে আগেই জানিয়েছিল যে শনিবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ৯টার মধ্যে কলকাতা ও রাজ্যের বেশ কিছু জেলাতে কালবৈশাখী হতে পারে। এই কালবৈশাখীতে ৫০-৬০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে । আর সেই পূর্বাভাস অনুযায়ী, কলকাতা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি, পূর্ব মেদিনীপুর ও নদিয়ার বেশ কিছু জায়গায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বিক্ষিপ্ত ভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি শুরু হয়েছে। কোথাও আবার ভারী বৃষ্টিও হয়েছে। এই যে ঝড়বৃষ্টি হচ্ছে তা মূলত স্থানীয় মেঘ থেকেই হচ্ছে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

Related Articles

Back to top button