The Bong Guy takes a dig sharing Roshan Shanavas photo

Partha

‘সব ফাঁকা কলসী হনু’, নাম না করেই টলি-বলি ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে কটাক্ষ ‘বং গাই’ কিরণের!

নিউজশর্ট ডেস্কঃ ‘দি বং গাই’ (The Bong Guy) নামটার সাথে নিশ্চই সকলেই পরিচিত। আসল নাম কিরণ দত্ত (Kiran Dutta) হলেও ‘বং গাই’ নামেই তাঁকে চেনে গোটা বাংলা। অবশ্য দেশ বললেও খুব একটা ভুল হবে না। কারণ সম্প্রতি Big Boss OTT তে যাওয়ার অফার এসেছিল তাঁর কাছে। কিন্তু সেটা ফিরিয়ে দিয়ে কারণ হিসাবে কিরণ জানান, তিনি নাকি বড্ড বোরিং আর রিয়েলিটি শো মেটিরিয়াল তো একেবারেই নন।

   

তবে এতো পুরোনো খবর, সম্প্রতি আরও একটি কারণে চর্চায় উঠে এসেছেন বং গাই। না, নতুন কোনো ভিডিও আসেনি বরং নাম না করে ‘ফাঁকা কলসি হনু’ বলতেই শুরু হয়েছে আলোচনা। কিন্তু আসল ব্যাপারটা কি? চলুন সেটাই জেনে নেওয়া যাক।

দক্ষিণী সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার রোশন শানাভাস। একসময় ইউটিউবের হিসাবেই কেরিয়ার শুরু করেন রোশন, তবে ইতিমধ্যেই দক্ষিণী ছবি ‘আবেশম’ এ কাজ করে ফেলেছেন তিনি। নেটিজেনদের কাছে বেশ প্রশংসিত হয়েছে তাঁর অভিনয়। অনেকেই বলেছেন রোশনের অভিনয়টাও মন্দ হয়। এবার তাকে নিয়েই মুখ খুলেছেন ‘বং গাই’ কিরণ।

Kiran Dutta the bong guy

আরও পড়ুনঃ পর্দায় দিদি হলেও বাস্তবে পুরোই উল্টো! নীলুর থেকে কত ছোট ‘মিঠিঝোরা’ রাই? জানেন না অনেকেই

কিরণ নিজের সোশ্যাল মিডিয়া স্টোরিতে একটি ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, ইউটিউবের হয়েও যে ভালো অভিনেতা হওয়া যায় তার উদাহরণ রোশন। আর এখানে তো সব ফাঁকা কলসী হনুদের অর্থে হার্ট হয়। একদিন নিজেই সিনেমা বানাব’। তাঁর মতে, সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার মানেই পড়াশোনায় ভালো না, অভিনয় পারে না এমটাই মনে করে টলিপাড়ার অনেকেই। তবে তাদের ধারণা একটা নিছক ভুল দাবি বং গাই কিরণের।

২০২২ সালে পাভেলের পরিচালিত ‘কলকাতা চলন্তিকা’ ছবিতে দ্বিতীয়পরিয়ার বিপরিতে দেখা গিয়েছিল কিরণ দত্তকে। তবে ছবিতে খুব একটা ডায়লগই ছিল না। টিয়া চরিত্রটার সাথে জাস্টিস হয়নি বলে জানিয়েছিলেন কিরণ।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই কিরণ দত্ত সম্পর্ক কিছু অজানা তথ্য প্রকাশ্যে এসেছে। সোশ্যাল মিডিয়াতে রিল শেয়ার করে তিনি জানান, এই ত্রিপুরার গ্রামটিতে জন্মেছিলেন আমার বাবা আর এই গ্রামেই তিনি বড় হয়েছেন। অর্থাৎ বং গাইয়ের পৈতৃক বাড়ি বাংলা নয় বরং ত্রিপুরায়। তবে বং গাই কিন্তু বাংলাতেই মানুষ হয়েছেন, পড়াশোনা করেছেন, এমনকি ইঞ্জিনিয়ারিং করে শেষ মেশ ইউটিউবার হয়েছেন।