বিনোদন,টলিউড,টলিউড বিতর্ক,বাংলা ছবি,স্বস্তিকা মুখার্জী,শ্রীমতি,Entertainment,Tollywood,Tollywood Controversy,Bengali Cinema,Swastika Mukherjee,Sreemoti

Papiya Paul

ছবি চলতেই দেওয়া হয় না , দর্শক পাশে দাঁড়াবেন কিভাবে! সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগড়ে দিলেন ‘শ্রীমতী’ স্বস্তিকা

করোনা মহামারীর পর থেকে বিনোদন জগতে একপ্রকার ভাটা নেমে এসেছিল। সবথেকে বেশি সমস্যায় পড়েছিল বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি(Bengali Film Industry)। তাই করোনার পর ফের সিনেমা হল খুললে দেখা গিয়েছে বাংলা ছবির বক্স অফিসে ভাটা! কিন্তু অন্যদিকে বলিউড ও দক্ষিণের সিনেমার দাপটে বাংলা সিনেমার শো টাইম নিয়েও শুরু হয়েছিল গন্ডগোল।

আর তাই তখন অভিনেতা থেকে প্রযোজক, পরিচালক সবাই সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু করেছিলেন নতুন উদ্যোগ। হ্যাশ ট্যাগ ‘বাংলা সিনেমার পাশে দাঁড়ান’। দর্শকদের বারবার অনুরোধ করে বুঝিয়ে তাদের সিনেমা হলে ফেরানোর আপ্রাণ চেষ্টা করা হয়। তবে সত্যিই কি এই উদ্যোগ কাজে এসেছে? এবার এই প্রশ্নই করেছেন টলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়(Swastika Mukherjee)।

তিনি এদিন তার সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টে একটি লম্বা পোষ্টের মাধ্যমে প্রশ্ন করেছেন, ‘বাংলা ছবি সাপোর্ট করুন, কিন্তু কে কিভাবে করবেন?’ আসলে গত সপ্তাহে মুক্তি পেয়েছে স্বস্তিকা অভিনীত ছবি ‘শ্রীমতি’। প্রথম সপ্তাহে শো টাইম ঠিকঠাক থাকলেও সপ্তাহ ঘুরতেই সেই শো টাইম পিছিয়ে পড়েছে। আর যে সমস্ত টাইম দেওয়া হয়েছে তার সবই দুপুরে।

এরপরই ফেসবুকে লম্বা পোস্টে স্বস্তিকা লিখলেন, ‘বাংলা ছবি দেখুন, বাংলা ছবি সাপোর্ট করুন কিন্তু কে কিভাবে করবে ? ডিসট্রিবিউটার যে ছবি চালাতে চাইবে সেই ছবি চলবে, নতুন প্রোডিউসার হলে তাকে কোনরকম জায়গা দেওয়া হবে না, উঠতি ডিরেক্টর হলে তাকে পাত্তা দেওয়ার দরকার নেই। আর নারী কেন্দ্রীক ছবি হলে তো প্রথম থেকেই বাদ এর খাতায়। ভাল সেল হলেও, মানুষ উচ্ছসিত প্রশংসা করলেও, রিভিউ/ফিডব্যাক সব দারুণ হলেও তাতে কি ? হল দেওয়া হবেনা আর দেওয়া হলেও এমন শো টাইম দেওয়া হবে যাতে কেউ না যেতে পারে, সেল তলানি তে ঠ্যাকে এবং তৃতীয় সপ্তাহে ছবি উঠিয়ে দেওয়া যায়। শ্রীমতির কপালেও এটাই হল। 1st week এ ছিল ১৭ টা হল 2nd week এ দেওয়া হল ৪ টে আর সমস্ত শো টাইম দুপুরে। কে যাবে দুপুর ১২-১ টার সময় সিনেমা দেখতে? কাল PVR Diamond Plaza তে বিকেল ৪.২০ শো তে ১০০ জনের ওপরে দশর্ক ছিলেন কিন্তু তাও আজকে থেকে একটাই শো দুপুরে। কোটি টাকা খরচ করে ছবি বানানো হয় কিন্তু তাকে দুটো week সময় দেওয়া হবেনা।’


এরপরেই অভিনেত্রী আরো খোলসা করে লেখেন, ‘ আমাদের distributor SVF 👏🏻👏🏻তাদের নিজেদের প্রযোজিত ছবি এল আজ, তাই সব ভাল শো তাদের, এটাই তো হয়ে এসেছে, এটাই হবে। যাক, আপনারা আপিস কামাই করে আর মা-মাসি-দিদা রা সব কাজ ফেলে রেখে দুপুর বেলা শ্রীমতি দেখতে যাবেন না। পরের সপ্তাহে এমনিও উঠিয়ে দেবে ব্যাস বাংলা ছবি কে এইভাবেই বাংলা ছবির ডিসট্রিবিউটার রা সাপোর্ট করবে। শুধু মন দিয়ে অভিনয় করলে হবে ? ছবি চলতে দেবেনা তাই নিয়ে ও যুদ্ধ করতে হবে। করেও কিছু হবেনা। আপনাদের ভালবাসা মনে রাখব, আশীর্বাদ করুন যাতে আরো যুদ্ধ করার জোর পাই।’